নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

জঙ্গিদের কোনও ধর্ম হয় না, মুর্শিদাবাদ থেকে আল কায়দার জঙ্গি গ্রেফতার হওয়ার পর বললেন সুজন

কলকাতাঃ মুর্শিদাবাদে (Murshidabad) ওসামা বিল লাদেনের সংগঠন আল কায়দার জঙ্গি গ্রেফতার হওয়ার পর রাজ্য পুলিশের দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন বিধানসভায় বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী (Sujan Chakraborty)। উনি বলেন, কোনও নিরপরাধ মানুষকে যেন ভুগতে না হয়। এর সাথে সাথে তিনি এও বলেন যে, জঙ্গিরা অপরাধী ঠিকই, কিন্তু তাঁরা কোনও ধর্মের হয় না। উনি বলেন, রাজ্যের প্রশাসন নাকে তেল দিয়ে ঘুমাচ্ছিল নাকি? যদি তাই না হয়, তাহলে দিল্লীকে কেন সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে?

একদিন আগে, মুর্শিদাবাদের প্রাক্তন সাংসদ তথা সিপিএম নেতা বদরুদ্দোজা খান বলেন, ‘ওঁরা সত্যিই যদি জঙ্গি হয়, তাহলে আইন আইনের পথে চলবে। কিন্তু কেন্দ্র সরকার এখন অনেককেই অন্যায্য ভাবে জেলে পুরছে।” উদাহরণ স্বরুপ তিনি JNU এর প্রাক্তন ছাত্র নেতা উমর খালিদের কথা তুলে ধরেন তিনি।

আরেকদিনে, এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি অধীর চৌধুরী (Adhir Ranjan Chowdhury) তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘আল কায়দার মতো কুখ্যাত জঙ্গি সংগঠন যদি বাংলায় এসে ঘাঁটি গাঁড়তে শুরু করে, তাহলে বুঝে নিতে হবে যে রাজ্যের পরিস্থিতি ভয়াবহ।” তিনি রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করে বলেন, রাজ্যের পুলিশ তো তৃণমূলকে বাঁচাতে ব্যস্ত, জঙ্গি খোঁজার সময় কই তাঁদের? প্রসঙ্গত, রাজ্যের গোয়েন্দা বিভাগকে তিনি এই ঘটনায় কাঠগড়ায় তুলেছেন।

জানিয়ে দিই, কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি অধীর চৌধুরী বহরমপুর থেকে সাংসদ। আর মুর্শিদাবাদে এরকম এক ঘটনায় ওনার প্রতিক্রিয়া সামনে আসাটাই স্বাভাবিক। এর আগে বর্ধমানের খাগড়াগড় কাণ্ড ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। তখন বারবার সতর্কতা জারি করার পরেও ঘুম ভাঙেনি রাজ্য সরকারের বলে অভিযোগ জানিয়েছিল বিজেপি। এমনকি রাজ্য সরকারের তরফ থেকে এই ঘটনাকে ছোট করে দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছিল।

Back to top button
Close