নতুন খবরভারতবর্ষ

কাশ্মীরি পন্ডিতদের জন্য আওয়াজ তুললেন সুরেশ রায়না! বললেন নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদ

সুরেশ রায়না (Suresh Raina), যিনি এক সময় ইন্ডিয়া ক্রিকেট টিমের মিডল অর্ডারের প্রাণ ছিলেন তিনি কাশ্মীরি পণ্ডিতদের জন্য আওয়াজ তুলেছেন। তিনি বলেছেন যে তিনি আবার নিজের বাড়িতে ফিরে যেতে চান। জানিয়ে দি, সুরেশ রায়নার পরিবার মূলত জম্মু ও কাশ্মীরের। তবে রায়না ইউপির মুরাদনগরে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। রবিবার সুরেশ রায়না কাশ্মীরি পণ্ডিতদের জন্য একটি টুইট করেছিলেন, তাতে তিনি লিখেছিলেন, ‘কাশ্মীরি পণ্ডিতদের অবস্থাতে সহায়তা করার জন্য নরেন্দ্র মোদী এবং রাজ্যবর্ধন রাঠোরকে ধন্যবাদ, আমরা সবাই খুব শীঘ্রই ফিরে যাব।’ জানিয়ে দি, সুরেশ রায়না দীর্ঘদিন ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে রয়েছেন। তিনি বর্তমানে স্ত্রীর সাথে একটি সার্জারি করানোর জন্য নেদারল্যান্ডসে রয়েছেন।

সুরেশ রায়নার পরিবার আগে জম্মু-কাশ্মীরে থাকতেন, উনার বাবা সেনাতে ছিলেন। পরে তারা UP তে চলে আসেন। বিজেপি সাংসদ রাজ্যবর্ধন রাঠোরের ভিডিওটি রিটুইট করে নিজের কথা রেখেছেন। রায়না কাশ্মীরি পন্ডিতদের জন্য আওয়াজ তুলেছেন যাদের উপর কট্টরপন্থীরা গণ-হত্যা চালিয়েছিল।

রাজ্যবর্ধন রাঠোর কাশ্মীরি পণ্ডিতদের কথা বলতে গিয়ে যারা পুরষ্কার এবং পুরষ্কার ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তাদের আক্রমন করেন। তিনি ধারা 370 অপসারণ এবং নাগরিকত্ব সংশোধন আইন কার্যকর করার পক্ষেও সমর্থন করে বিবৃতি দেন। তিনি বলেছিলেন, ‘আজ সোশ্যাল মিডিয়ায় আমার দেশবাসী কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ট্র্যাজেডির কথা শুনে তাদের পুরানো স্মৃতি দেখে ব্যথা হয়।

 

রাজ্যবর্ধন রাঠোর বলেন কাশ্মীরি পন্ডিতদের নিজের দেশেই তাদের পূর্বপুরুষদের ঘরগুলি, তাদের সমস্ত সম্পত্তি রেখে, রাতের অন্ধকারে জীবন থেকে পালাতে হয়েছিল এবং নিজের দেশে শরণার্থী হতে হয়েছিল, কোন দেশে এটি ঘটেছিল। আমাদের দেশে ঘটেছে। এই ব্যক্তিরা 30 বছর ধরে শরণার্থী হিসাবে জীবনযাপন করছেন এবং আজ একটি বিভাগ রয়েছে যারা মানবাধিকার সম্পর্কে কথা বলে। কাশ্মীরি পণ্ডিতদের যখন এই ঘটনা ঘটছিল তখন এই লোকেরা কোথায় ছিল?

Back to top button
Close