নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

বুথে এজেন্টই দিতে পারেনি! ৫০ হাজার ভোটে হারবে বেগম! সকাল সকাল ভোট দিয়ে বললেন শুভেন্দু অধিকারী

নন্দীগ্রামঃ বঙ্গে ভোটযুদ্ধের আজ দ্বিতীয় দফা। রাজ্যের ৪ জেলার ৩০ আসনে আজ সকাল থেকে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ। আজকের নির্বাচনের হাইভোল্টেজ আসন হল পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্র। ওই কেন্দ্রে শাসক দলের প্রার্থী হলেন খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর ওনার বিরুদ্ধে নির্বাচনে লড়াই করছেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং সংযুক্ত মোর্চার বাম প্রার্থী মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়।

নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রে জয়ের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী শুভেন্দু অধিকারী। সকাল সকাল ভোট দিয়ে বেরিয়ে বিজেপির প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘দিদি হেরে গেছে। নন্দীগ্রামের মানুষের সঙ্গে আমি বহু বছরের সম্পর্ক। আমি ওদের পরিবারের লোকের মতই। পরাজয়ের মার্জিন বলা ঠিক না, তবে আগেও বলেছি এখনও বলছি বেগম ৫০ হাজার ভোটে হারবে। উন্নয়ন জিতবে।” শুভেন্দুবাবু বলেন, তৃণমূল নন্দীগ্রামের প্রায় ১০০ বুথে পোলিং এজেন্টই দিতে পারেনি।

শুভেন্দু অধিকারী গতকালের মমতা বন্দ্যোপাধায়ের হুগলির গোঘাটের সভার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘উনি আমাকে শালা বলেছে, উনি বলেছে দুধকলা দিয়ে কালসাপ পুষেছিলাম। উনি আমাকে একবার না, একাধিকবার শালা বলেছেন।” শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পরিচিতি দিয়েছিলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন অটলবিহারী বাজপেয়ী। আসল বিশ্বাসঘাতক তো উনি নিজেই।”

আরেকদিকে, আজ দ্বিতীয় দফার ভোটের দিন নন্দীগ্রাম উদ্ধার হয়েছে বিজেপির কর্মীর ঝুলন্ত দেহ। পরিবারের অভিযোগ, তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা বেশ কয়েকদিন ধরে তাঁকে হুমকি দিচ্ছিল আর সেটা সহ্য করতে না পেরে অবশেষে আত্মঘাতী হন তিনি। নন্দীগ্রামের ১ নম্বর ব্লকের পূর্ব ভেকুটিয়ায় বিজেপির কর্মী উদয়শঙ্কর দুবের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়েছে। এই ঘটনার পর এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

Related Articles

Back to top button