নতুন খবরভারতবর্ষভারতীয় সংস্কৃতি

সন্তানরা গ্রহণ করছেন অন্য ধর্ম, ক্ষুব্ধ হয়ে মন্দিরকে ২ কোটি টাকার সম্পত্তি দান বৃদ্ধের

নয়া দিল্লিঃ তামিলনাড়ুর কাঞ্চিপুরমে এমন একটি ঘটনা সামনে এসেছে, যা হিন্দু সমাজের জন্য শুধু একটি বিস্ময়কর দৃষ্টান্তর থেকে বেশি একটি শিক্ষা। কাঞ্চিপুরমের বাসিন্দা ৮৫ বছর বয়সী ভেলাউধাম তার ২ কোটি টাকার বাড়ি একটি মন্দিরে দান করেছেন। ভেলায়ধাম তামিলনাড়ু সরকারের একজন স্বাস্থ্য পরিদর্শক ছিলেন এবং তিনি যে বাড়িটি তৈরি করেছিলেন তার মূল্য প্রায় ২ কোটি টাকা। তাঁর সন্তানেরা হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়, ভেলায়ুধাম তাঁর সন্তানদের এই কাজ দেখে এতটাই ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন যে তিনি তাঁর সমস্ত সম্পত্তি মন্দিরে দান করে দেন।

ভেলায়ুধামের তিন সন্তান। দুই মেয়ে এবং একটি ছেলে এবং তিনজনই খ্রিস্টান অনুসারীদের বিয়ে করেছেন। তাঁর জামাই এবং পুত্রবধূ উভয়ই খ্রিস্টান, তাই তাঁদের ভয় ছিল যে, ধর্মান্তরিত সন্তানরা তাঁর শেষকৃত্য করবে না। একটি স্থানীয় সংবাদপত্রকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে, ভেলায়ুধাম বলেছেন, “হিন্দু ধর্মের অনুসারী হিসাবে আমি চেয়েছিলাম আমার সন্তানরা আমাদের শেষকৃত্য সম্পন্ন করুক। আমার দুই মেয়েই খ্রিস্টান পুরুষদের বিয়ে করেছে এবং সরকারি চাকরি করছে। আমার ছেলে একটি প্রাইভেট ফার্মে কাজ করে এবং একজন খ্রিস্টান মহিলাকে বিয়ে করেছে। তিনজনই খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করেছেন। তাই তাঁরা হিন্দু রীতি অনুযায়ী আমার শেষকৃত্য করবে না।”

তিনি বলেন, “আমার ২ হাজার ৬৮০ বর্গফুটের একটি বাড়ি আছে, যার মূল্য বর্তমানে প্রায় ২ কোটি টাকা। যারা ধর্ম পরিবর্তন করেছে তাঁদের আমি বাড়ি দিতে চাই না। তাই আমি এটি আমার পরিবারের দেবতা কুমারকোট্টম মুরুগান মন্দিরে দান করেছি। যারা খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করেছে তাঁরা আমার মৃত্যুর পরও কোনো অনুষ্ঠানও করবে না। তাই আমি আমার সম্পত্তি তাঁদের দিতে চাই না। আমার এক ছেলে আর মেয়ে বাড়ির এক অংশে থাকে। আমার স্ত্রী এবং আমি যতদিন এখানে আছি ততদিন তাঁরা এখানে থাকতে পারবে। কিন্তু যে মুহুর্তে আমরা মারা যাব, মন্দিরটি সেই বাড়ির দখলে চলে যাবে।”

ভেলায়ুধাম তাঁর সম্পত্তির কাগজপত্র তামিলনাড়ু সরকারের Hindu Religious and Charitable Endowments বিভাগের কাছে হস্তান্তর করেছে, যা মন্দিরগুলির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বপ্রাপ্ত সরকারী বিভাগ। কিন্তু নিয়তির নিষ্ঠুর পরিহাস দেখুন,তামিলনাড়ু সরকারের HRCE বিভাগও খ্রিস্টান মিশনারিদের নিয়ন্ত্রণে। খ্রিস্টান মিশনারিরা এই বিভাগের মাধ্যমে হিন্দু মন্দিরের জমি ও সম্পত্তি নিলাম করছে। ভেলায়ুধামের মতো লোকেরা অবশ্যই একটি উদাহরণ, কারণ তাঁরা শিশু প্রেমের চেয়ে ধর্ম এবং সংস্কৃতিকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন।

প্রতীকী ছবি

এই ঘটনা সনাতন ধর্মের অনুসারীদের জন্য একটি জলজ্যান্ত দৃষ্টান্ত। যে বাবা-মা তাঁদের সন্তানদের লালন-পালন করে মানুষ করেছেন, তাঁদের শিক্ষার ব্যবস্থা করেছেন, তাঁদের সক্ষম করেছেন যাতে তাঁরা তাঁদের জীবিকা নির্বাহ করতে পারে, সেই সন্তানরাই তাঁদের মা-বাবার শেষকৃত্য করতে চায় না। এর কারণ হল, তাঁদের সন্তানেরা খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করেছে।

Related Articles

Back to top button