Press "Enter" to skip to content

ভারত ভাগ করে মুসলিমদের দুটো দেশ দেওয়া হয়েছিল তখন ধর্মনিরপেক্ষতা কোথায় ছিল?: তারেক ফাতাহ, কানাডিয়ান লেখক।

শেয়ার করুন -

কানাডিয়ান লেখক ও সাংবাদিক তারেক ফাতাহ (Tarek Fatah) CAA নিয়ে বিবৃতি দিতে গিয়ে বড়ো মন্তব্য করেছেন। উনি বলেছেন, ধর্মের নামে যখন মুসলমানদের পুরো দেশ দেওয়া হয়েছিল তখন তথাকথিত ধর্মনিরপেক্ষতা কোথায় ছিল? এরপর ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের বিভাজন হলে সেটাকেও একটা ইসলামিক দেশে পরিণত করা হয়। তারেক ফাতাহ ধর্ম নিরপেক্ষতার উপর প্রশ্ন তুলে বলেন কেন সময় কেন বাংলাদেশকে ভারতে যোগ করানো হয়নি? উনি বলেন বাংলাদেশ এক সময় বঙ্গের অংশ ছিল। সেহেতু এটাকে ভারতে একীকরণ করার প্রয়োজন ছিল।

প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, ভারতীয় সেনা প্রধান ১৯৭১ সালে বাংলাদেশকে স্বাধীন কররা পর বলেছিলেন বাংলাদেশকে ভারতের সাথে জুড়ে নিতে। কিন্তু ইন্দ্রিরা গান্ধী সেটা করেননি। তারেক ফাতাহ বলেছেন, পাকিস্তান ও বাংলাদেশে বর্তমানে বসবাসরত সংখ্যালঘুরা কয়েক দশক ধরে ভয়াবহ নরক নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে যদি তাদের ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হচ্ছে, তবে তাতে দোষ কী?

তারেক ফাতাহ বলেন, যারা ভারতে ইসলামিক দেশ করার স্বপ্ন দেখতো তাদের স্বপ্নে জল ঢালা পড়েছে। মোদীর সিদ্ধান্ত গজবা-এ-হিন্দ এর স্বপ্ন দেখা লোকেদের বড়ো ঝটকা দিয়েছে। তারেক ফাতাহ বলেন ভারতের লোকজনের উচিত সস্তা পেঁয়াজ, সস্তা আলু না চেয়ে দেশের জন্য চিন্তা করা। কারণ দেশ না থাকলে কোনো কিছুই থাকবে না।

প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, কিছু রাজনৈতিক ও মুসলিম সমাজের একাংশ CAA এর বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমেছে। দাবি করা হচ্ছে CAA এর আওতায় মুসলিমদেরও সামিল করা হোক। আসলে CAA এর আওতায় পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আগত হিন্দু, বৌদ্ধ,জৈন, খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। এখন দাবি উঠছে পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আগত মুসলিম ও রোহিঙ্গাদেরও নাগরিকত্ব দেওয়া হোক। এই দাবি নিয়ে বহু যায়গায় হৈচৈ শুরু হয়েছে। দেশের নানা প্রান্তে দাঙ্গা ফ্যাসাদের পরিস্থিতি উৎপন্ন হয়েছে।