নতুন খবরবাংলাদেশ

“বাংলাদেশের জিহাদীদের আম্মি হচ্ছেন শেখ হাসিনা”- কট্টরপন্থীদের তান্ডব ইস্যুতে মন্তব্য তসলিমা নাসরিনের

এক সময় বঙ্গভূমি হিন্দুদের আর্থিক ও সংস্কৃতিক রাজধানী ছিল। ভারত খণ্ডের বঙ্গপ্রদেশ পুরো দক্ষিণ ও পূর্ব এশিয়াকে নেতৃত্ব দিত। তবে হাজার বছর ধরে হিন্দুদের পতনের সাথে সাথে বঙ্গভূমির গুরুত্বও হ্রাস পেয়েছে। এখন বঙ্গভূমির একটা বড়ো অংশ যা বাংলাদেশ (Bangladesh) নামে পরিচিত হিন্দুদের জন্য নরকে পরিণত হয়েছে। আর এর তাজা উদাহরণ দুর্গাপূজায় পাওয়া গেছে।

দুর্গাপূজায় বাংলাদেশে ১০ টির বেশি মণ্ডপে হামলা চালানো হয়েছে। হিন্দু বিদ্বেষীরা নানা বাহানা তৈরি করে কুমিল্লা, চট্টগ্রাম সহ ১১ টি জেলায় হিন্দুদের দুর্গা পূজায় বাধা দিয়েছে। পান্ডেল ভাঙচুর করার পাশাপাশি চলেছে হিন্দুদের বাড়ি, ঘর দোকান পত্র পুড়িয়ে দেওয়ার মতো উপদ্রব। এমনকি Iskon মন্দিরেও হামলা চালিয়েছে বাংলাদেশের কট্টরপন্থীরা। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, কট্টরপন্থীদের তান্ডবে নিহত হয়েছে ৪ জন। তবে এই সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই।

প্রত্যেকবারের মতো বাংলাদেশের হিন্দুদের উপর এহেন অত্যাচার নিয়ে স্বঘোষিত বুদ্ধিজীবীরা এবারেও একেবারে চুপ। অবশ্য বাংলাদেশের ঘটনা নিয়ে মুখ খুলেছেন লেখিকা তসলিমা নাসরিন। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনা পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আক্রমন করেছেন।

শেখ হাসিনাকে উদেশ্য করে এক টুইটে তসলিমা নাসরিন লিখেছেন, “বাংলাদেশের নতুন নাম জিহাদিস্থান। জেহাদিদের দ্বারা, হিন্দুদের পূজা প্যান্ডেল, মণ্ডপ, মন্দির সব ভাঙচুর করা হয়েছে। শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশের মিডিয়াও একবারে নিশ্চুপ। শেখ হাসিনা এখন জিহাদিস্থানের রানি তথা জিহাদিদের আম্মি।” তসলিমা নাসরিন আরো বলেন, বাংলাদেশে জিহাদীদের জন্ম আটকাতে হলে মাদ্রাসাগুলো বন্ধ করতে হবে। তবেই বাংলাদেশে মানবতার দেখা মিলবে।

Related Articles

Back to top button