নতুন খবরভারতবর্ষ

চীনের বিরুদ্ধে বড়ো ঘোষণা টাটা গ্রুপের! চাইনিজ কোম্পানিগুলির মধ্যে ব্যাপক হাহাকার

এমন বহুবার দেখা গেছে যে কিছু ব্যাবসায়ী নিজের দেশের থেকে নিজের মুনাফাকে বেশি গুরুত্ব দেয়। উদাহরণ হিসেবে দীপাবলির সময়ে বেশকিছু ব্যাবসায়ী চীন থেকে মাল আমদানি করে মোটা মুনাফা কামিয়েছেন। সরকার,CAIT এর অনুরোধের পরেও বহু ব্যাবসায়ী মুনাফা কামাতে চীনের মাল বাজারে বিক্রি করেছে।

তবে সমস্যা শুধু এখানেই থেমে নেই, বহু কোম্পানি এমন রয়েছে যারা মেক ইন ইন্ডিয়া নামের আড়ালে ভারতীয়দের আবেগকে হাতিয়ার করে মুনাফা কামাচ্ছে। অর্থাৎ কিছু কোম্পানি এমন রয়েছে যাদের এসেম্বলি শুধুমাত্র ভারতে হয় অন্যদিকে ভেতরের ৯০% পার্টস চীন থেকে আমদানি করা হয়।

পরিস্থিতি এতটাই জটিল হয়ে পড়েছে যে আত্মনির্ভরতা হওয়ার জন্য দেশবাসীকে এবং সরকারকে প্রয়াস আরো তীব্র করার প্রয়োজন রয়েছে। তবে চীনের বিরুদ্ধে এই লড়াইতে এখন টাটা কোম্পানি কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে। ইলেক্ট্রনিকস কম্পোনেন্ট তৈরির লড়াই চীনের বিরুদ্ধে ভারতের সবথেকে কঠিন লড়াই। আর এই চ্যালেঞ্জকে স্বীকার করেই মাঠে নেমেছে টাটা গ্রুপ।
প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, টাটা কোম্পানি তামিলনাড়ুতে ৫০০০ কোটি টাকা ইনভেস্ট এর মাধ্যমে নতুন প্রোডাক্টশন প্ল্যান্ট উদ্বোধন করতে চলেছে। যেখানে মূলত ইলেক্ট্রনিক্স কম্পোনেন্ট তৈরি করা হবে।

এই কাজ অত্যন্ত দ্রুতগতিতে সম্পন্ন করার কাজ চলছে। যে ৫০০ একর জমির উপর প্ল্যান্ট স্থাপন করা হবে তার ভূমি পূজনের কাজ সম্প্রতি করা হয়েছে। টাটা এই প্ল্যান্টে আইফোন থেকে শুরু করে সমস্থ ফোনের কম্পোনেন্ট তৈরি করবে। আগামী কিছু বছরে এই প্ল্যান্ট ১৮০০০ চাকরি দেবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। চাইনিজ কোম্পানিগুলি ভারতের স্মার্ট ফোন মেকিং কোম্পানিগুলিকে বাজার থেকে ঠেলে সরিয়ে দিয়েছেন।

এখন ভারতীয় কোম্পানিগুলি টাটার থেকে সস্তায় কম্পোনেন্ট পেলে নিশ্চিতভাবে আবারও নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করতে সক্ষম হবে। টাটা এও ঘোষণা করেছে, যদি সবকিছু ঠিক থাকে তাহলে ইনভেস্টমেন্ট ৫০০০ কোটি থেকে বেরিয়ে ৮০০০ কোটি করে দেওয়া হবে।

Related Articles

Back to top button