Press "Enter" to skip to content

মুখ্যমন্ত্রীকে তুলোধোনা সায়নী ঘোষের, ভিডিও ট্যুইট করে তথাগত বললেন ‘আহা, দেখে বড় ভালো লাগলো”

শেয়ার করুন -

কলকাতাঃ ‘বাইকে করে জয় শ্রী রাম বলাটা বাঙালীর সংস্কৃতি না।” এই কথা বলে বিজেপির নিশানায় চলে এসেছিলেন টলিউডের অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ। এরপর থেকে লাগাতার বিজেপির কর্মীরা ওনাকে নিয়ে মিম বানাতে থাকে। এরপরই রাজ্য বিজেপির নেতা তথা ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়ের সাথে ট্যুইটারে বাকযুদ্ধ শুরু হয় সায়নী ঘোষের।

তথাগত রায়ের সাথে ট্যুইটারে বাকযুদ্ধের পর সায়নী ঘোষের একটি পুরনো ট্যুইটার পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। ওই পোস্টটির মাধ্যমে হিন্দুদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত তোলার অভিযোগ ওঠে সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে। এরপর ত্রিপুর প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায় টলিউড অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন।

তবে শুদু তথাগত রায়ই নন, সায়নীর বিরুদ্ধে থানায় একাধিক অভিযোগ দায়ের করা হয় বিজেপির নেতা-কর্মীদের তরফ থেকে। সায়নী ঘোষ সেই বিতর্কিত পোস্ট নিয়ে ক্ষমাও চান এবং সেটি তিনি ডিলিটও করে দিয়েছেন বলে জানান। তিনিও এও বলেছিলেন যে, ওনার ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট একবার হ্যাক হয়েছিল। আর এই পোস্ট তিনি নিজে করেন নি।

এরপরেই বিজেপির তরফ থেকে সায়নীকে নিয়ে বিতর্ক থামছিল না। আর এই নিয়ে গতকাল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুরুলিয়ার সভা থেকে নাম না করেই তথাগত রায়কে আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, বয়স হয়েছে এরপরেও ভীমরতি যায় না। নাতনীর বয়সের মেয়েকে প্রতিদিন হুমকি দেওয়া হচ্ছে। ওঁর স্বাধীন ভাবে কথা বলার অধিকার আছে তাই বলেছে।

মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বাংলার বুকে এভাবে ধমকালে মুখে লিকোপাস্ট লাগিয়ে দেব। ক্ষমতা থাকলে টলিউডের গায়ে হাত দিয়ে দেখাও। ক্ষমতা থাকলে সংস্কৃতিপ্রেমী মানুষের গায়ে হাত দিয়ে দেখাও।” গতকাল পুরুলিয়ার সভা থেকে একদিকে যেমন অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের পাশে দাঁড়ান মুখ্যমন্ত্রী। তেমনই আরেকদিকে বিজেপি চরম হুঁশিয়ারিও দেন তিনি।

গতকালের ঘটনার পর আজ তথাগত রায় একটি ট্যুইট করে সায়নী ঘোষকে বাহবা দিলেন। তথাগত রায় একটি ভিডিও ট্যুইট করেছেন, যেখানে সায়নী ঘোষকে ‘ভূতের ভবিষ্যৎ” নামের সিনেমা বন্ধ করার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তুলোধোনা করতে দেখা যাচ্ছে। তথাগত রায় ট্যুইটে লেখেন, ‘সায়নীর পাশে মমতা ! আহা, দেখে বড় ভালো লাগলো ! আর এই দেখুন মমতার পাশে কে? ”

তথাগত রায় ট্যুইট করে বোঝাতে চেয়েছেন যে, যেই অভিনেত্রীর জন্য ওনাকে বুড়ো বয়সে ভীমরতি হয়েছে বলে কটাক্ষ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেই অভিনেত্রীর পাশে দাঁড়িয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই অভিনেত্রীই একদিন ওনাকে সবার সামনে তুলোধনা করেছিলেন।