নতুন খবরভারতবর্ষ

ভারতের আরও একটি কড়া সিদ্ধান্তে মাথায় হাত চীনের, কোটি কোটি টাকা জলে যাবে বেজিংয়ের

গত কয়েক বছর ধরেই  চীন তাঁদের পণ্য ভারতের বাজারে ডাম্পিং করছে চীন। খেলনা থেকে শুরু করে উৎসবের আইটেম এবং জামাকাপড়ের মতো চীনা পণ্য ভারতের বাজারে রয়েছে। চীনের স্পষ্ট উদ্দেশ্য হল, ভারতে তার সবচেয়ে নিম্নমানের পণ্যগুলি সস্তায় বিক্রি করা, যার ফলে ভারতের কোম্পানিগুলি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। যাইহোক, গালওয়ান উপত্যকার ঘটনার পর ভারত তাঁর নীতি পরিবর্তন করেছে এবং এখন দেশ যাতে চীনা ডাম্পইয়ার্ড তৈরি না হহয়, তাঁর ব্যবস্থা নিচ্ছে। এই ধারাবাহিকতায় ভারত ৫ বছরের জন্য ৫টি চীনা পণ্যের ওপর অ্যান্টি-ডাম্পিং শুল্ক আরোপ করেছে।

ইকোনমিক টাইমসের প্রতিবেদন অনুসারে, ভারত পাঁচটি চীনা পণ্যের উপর পাঁচ বছরের জন্য অ্যান্টি-ডাম্পিং শুল্ক আরোপ করেছে, যার মধ্যে কিছু অ্যালুমিনিয়াম এবং কিছু রাসায়নিক পণ্য রয়েছে। পাশাপাশি, স্থানীয় নির্মাতাদের চীনের সস্তা আমদানি থেকে বাঁচাতে কেন্দ্রীয় সরকার এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ইনডাইরেক্ট ট্যাক্সেস অ্যান্ড কাস্টমস (CBIC) এর একটি পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে যে, অ্যালুমিনিয়াম, সোডিয়াম হাইড্রোসালফাইট, সিলিকন সিলান্ট হাইড্রোফ্লুরোকার্বন (HFC) R-32 এবং হাইড্রোফ্লুরোকার্বন মিশ্রণের কিছু পণ্যের উপর নতুন শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। এই পণ্যগুলি তাপবিদ্যুৎ, সৌর শক্তি, রেফ্রিজারেশন এবং রঞ্জক শিল্পের মতো অনেক শিল্পে ব্যবহৃত হয়।

CBIC বলেছে, “এই বিজ্ঞপ্তির অধীনে আরোপিত অ্যান্টি-ডাম্পিং শুল্ক সরকারী গেজেটে এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের তারিখ থেকে পাঁচ বছরের জন্য ধার্য করা হবে।এটি ভারতীয় মুদ্রায় প্রদেয় হবে।” সস্তা চীনা আমদানি থেকে দেশীয় নির্মাতাদের রক্ষা করার জন্য সিবিআইসি CKD/SKD (সম্পূর্ণ এবং সেমি নকড ডাউন) ট্রেলারগুলির জন্য এক্সেলগুলিতে এই শুল্ক আরোপ করেছে। ভারতের এই সিদ্ধান্তে একদিকে যেমন দেশীয় নির্মাতারা বাঁচবেন। তেমনই বেজিং ব্যবসাতেও কোটি কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

Related Articles

Back to top button