নতুন খবরভারতবর্ষ

তামিলনাড়ুতে মন্দিরের ৪৭ হাজার একর জমি উধাও, রাজ্য সরকারকে তুলোধোনা মাদ্রাস হাইকোর্টের

চেন্নাইঃ মাদ্রাস হাইকোর্ট ‘লস্ট টেম্পেলস” মামলায় বড় পদক্ষেপ নিয়ে তামিলনাড়ু সরকারের কাছে মন্দিরের বেদখল হওয়া ৪৭ হাজার একর জমি নিয়ে জবাব চেয়েছে। ১৯৮৪-৮৫ এর পলিসি নোট অনুযায়ী, মন্দিরের মোট জমি ৫.২৫ লক্ষ একর ছিল। ২০১৯-২০ এর পলিসি নোটে সেই জমি কমিয়ে ৪.৭৮ লক্ষ একর বলা হয়েছে।

মাদ্রাস হাইকোর্টের বিচারক এন কিরুবাকরণ আর তিবি থমিলসেল্ভি সরকারি আইনজীবী রিচার্ড উইলসনকে Hindu Religious and Charitable Endowments Department এর তরফ থেকে নোটিশ নিয়ে আগামী ৫ জুলাইয়ের মধ্যে এই মামলায় হলফনামা দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছেন। বিচারকরা স্পষ্ট বলেছেন যে, পলিসি নোট খতিয়ে দেখার পর এটাই বোঝা যাচ্ছে যে, ৪৭ হাজার একর জমি বেদখল হয়ে গিয়েছে।

আদালত তামিলনাড়ু সরকার আর প্রত্নতাত্ত্বিক সার্ভে অফ ইন্ডিয়া (ASI) কে রাজ্যের মধ্যে থাকা ঐতিহাসিক/প্রত্নতাত্ত্বিক গুরুত্বের সাথে সমস্ত স্থাপত্য, স্মারক, মন্দির, প্রাচীন বস্তুগুলোকে চিহ্নিত করার জন্য ১৭ সদস্যের একটি কমিশন গঠন করার নির্দেশ দিয়েছে। এছাড়াও আদালত রাজ্য সরকারকে এই বিষয়ে পর্যবেক্ষণের পাশাপাশি মন্দির এবং স্মারকগুলোকে মেরামত করার নির্দেশ জারি করেছে।

আদালত বিশেষ করে প্রতিটি মন্দিরে স্ট্রং রুম সহ মূর্তির সুরক্ষা সুনিশ্চিত করার জন্য ভিডিও সার্ভিল্যান্স আর সমস্ত মূর্তির কম্পিউটারাইজড তথ্য সহ সেগুলোর ছবির সুরক্ষার জন্য নির্দেশ জারি করেছে।

বিচারকরা বলেছেন যে, রাজ্য সরকার ১৯৮৪-৮৫ সালের পলিসি নোটে দেওয়া জমির বিবরণ আর নতুন নোটের জমির বিবরণের সমীক্ষা সহ একটি হলফনামা দায়ের করুক। আদালত বলেছে, মানব সম্পদ আর CE বিভাগকে এই বিষয়ে তথ্য জমা করার জন্য যেন কোনও সমস্যা না হয়, কারণ এই রিপোর্টেই জমি বেদখল হওয়ার তথ্য থাকবে।

Related Articles

Back to top button