Press "Enter" to skip to content

২০২০ সালে হবে ভারত পাকিস্তানের ভয়ানক যুদ্ধ! বলে গেছিলেন বিখ্যাত ভবিষ্যদ্বক্তা নস্ত্রাদামুস

শেয়ার করুন -

নস্ত্রাদামুসকে (Nostradamus) গোটা বিশ্বে ওনার সঠিক ভবিষ্যদ্বক্তার জন্য শ্রেয় করে। মহারান ফ্রেঞ্চ ভবিষ্যদ্বক্তা নস্ত্রাদামুস অনেক ভবিষ্যৎবাণীই সত্যি হয়েছে। যার মধ্যে বিশ্বযুদ্ধ, নেপোলিয়ানের উদয়, নাৎসি স্বৈরাচারী হিটলারের অস্তিত্ব যুক্ত আছে নেপোলিয়ান আর হিটলারকে নস্ত্রাদামুস ঈশ্বর বিরোধী বলেছিলেন। নস্ত্রাদামুস ২০২০ সাল নিয়েই ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন। ওনার হিসেবে এই নতুন বছর অনেক হিংসাত্মক হবে। যেই সমস্ত দেশের সাথে বহু বছর ধরে বিবাদ চলে আসছে, তাঁদের মধ্যে যুদ্ধের পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।

নস্ত্রাদামুস ২০২০ নিয়ে ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন। ওনার ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী, ২০২০ এর সাথে সাথে একটি নতুন যুগের সূচনা হবে। নস্ত্রাদামুসের ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী, ২০২০ সালে অনেক দেশের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হবে। নস্ত্রাদামুসের ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী, বিশ্বের অনেক দেশের গৃহ যুদ্ধের পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে। শোনা যায় যে, নস্ত্রাদামুস এর এই ভবিষ্যৎবাণী চীনকে নিয়ে ছিল। চীন বিগত কয়েক বছর ধরে আন্তরিক মামলা নিয়ে সমস্যায় ভুগছে। চীনের সরকার কয়েকটি অশান্ত এলাকাকে লাগাতার দমন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু এরপরেও বিরোধ প্রদর্শন থামার নাম নিচ্ছে না।

নস্ত্রাদামুস বলেছিলেন যে, ২০২০ সালে দুনিয়ার অনেক দেশই একে অপরের সাথে যুদ্ধ করতে পারে। আর অনেক দেশে যুদ্ধের পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে। মানা হচ্ছে যে, ওনার এই ভবিষ্যৎবাণী ভারত আর পাকিস্তানকে নিয়ে ছিল। বিগত কয়েক বছরে পাকিস্তান আর ভারতের মধ্যে উত্তেজনা বেড়েই চলেছে। ভারত দ্বারা কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার পর পাকিস্তানে অনেক উগ্র প্রদর্শন হয়।

পাকিস্তান এই ইস্যু বারবার আন্তর্জাতিক মঞ্চে তুলে ভারতকে কোণঠাসা করার চেষ্টা চালিয়েছে। কিন্তু বারবার পাকিস্তান এই কাজে ব্যর্থ হয়েছে। ভারত সরকারকে বিশ্বের অন্য কোন দেশের সামনে এই ইস্যু নিয়ে চাপ সহ্য করতে হয়নি। কারণ এই ইস্যুতে বিশ্বের সবথেকে শক্তিধর দেশগুলো ভারতকে সমর্থন করে এসেছে। আর এর জন্য পাকিস্তান আর রেগে আছে।

পাকিস্তান এবার এই ইস্যু নিয়ে মুসলিম দেশ গুলোর সাথে বৈঠক করে মুসলিম দেশ গুলোকে ভারতের বিরুদ্ধে উস্কাতে চাইছে। আর এর জন্য বিশ্বের সবথেকে বড় মুসলিম সংগঠন যারা পাকিস্তান পন্থী বলে পরিচিত, তাঁদের একটু হলেও সমর্থন পাচ্ছে ইমরান সরকার। কিন্তু এখনো পর্যন্ত পাকিস্তান বাদে কোন একটি মুসলিম দেশ খোলাখুলি ভাবে এই ইস্যু নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে কিছু বলার সাহস দেখায়নি।