Press "Enter" to skip to content

মন্ত্রীদের ঘরে আটকে বিক্ষোভ দেখানো শুরু করল তৃণমূল কর্মীরা! উদ্ধারে নামানো হল বিশাল পুলিশ বাহিনী

শেয়ার করুন -

জলপাইগুড়িঃ দলীয় কর্মীদের বিক্ষোভে উত্তাল জলপাইগুড়ি জেলার তৃণমূল (All India Trinamool Congress) কার্যালয়। জেলার নতুন কমিটি ঘোষণা হওয়ার পরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন তৃণমূল কর্মীরা। রাজ্যের দুই মন্ত্রীকে ঘরে আটকে রেখে তৃণমূলের নেতা কর্মীরা দেখান চরম বিক্ষোভ। পরিস্থিতি সামাল দিতে তৃণমূল পার্টি অফিসে পৌঁছায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। উপস্থিত হন উচ্চপদস্থ পুলিশ কর্তারাও।

আজ বুধবার তৃণমূলের মন্ত্রী অরুপ বিশ্বাস, মলয় ঘটক ও গৌতম দেবের উপস্থিতিতে জলপাইগুড়ি জেলা ও ব্লক স্তরের কমিটি গঠন হয়। সাংবাদিকদের সামনে নতুন কমিটির সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হয়। নতুন সদস্যদের নাম ঘোষণা হওয়ার পরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন তৃণমূলের নেতা কর্মীরা। তাঁরা জেলা কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ দেখানো শুরু করে। উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী গৌতম দেব বেরিয়ে গেলেও অরুপ বিশ্বাস আর মলয় ঘটক তৃণমূল কার্যালয়েই আটকে যান।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ময়নাগুড়ির ব্লক সভাপতি হিসেবে তৃণমূল নেতা মনোজ রায়ের নাম ঘোষণা হতেই দলের একাংশের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। এরপরেই ময়নাগুড়ির আরেক তৃণমূল নেতা ডালিম রায়ের অনুগামীরা তৃণমূল কার্যালয়ে বিক্ষোভ দেখানো শুরু করে। তাঁরা অভিযোগ করে বলে যে, টাকা দিয়ে দলের পদ কেনাবেচা হচ্ছে। আর তাঁরা এই ঘটনা মেনে নেবে না। ডালিম রায়ের এক অনুগামী বলেন, তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জীর নির্দেশই মানা হচ্ছে না দলে। যে যেমন পারছে তেমন ভাবে দল চালাচ্ছে। টাকা খাচ্ছে আর পদ দিচ্ছে। আমরা এসব হতে দেবো না।

বিক্ষোভ এতটাই বেড়ে যায় যে, দলের জেলা সভাপতির কথাও কান দেয় না কেউই। পরিস্থিতি নাকালের বাইরে যেতেই ঘটনাস্থলে পুলিশের বড় কর্তা সমেত চলে আসে পুলিশ বাহিনী। যদিও মন্ত্রী অরপ রায়ের আশ্বাসে শান্ত হন তৃণমূল নেতা কর্মীরা।