Press "Enter" to skip to content

মহিলাদেরকেও ছাড়ছে না তৃণমূল আশ্রিত লুঙ্গিবাহিনী! বহু বিজেপি কর্মীর পরিবার ঘর ছাড়া

শেয়ার করুন -

মমতা ব্যানার্জীর জয়লাভের খবর সামনে আসার পর থেকে লুঙ্গিবাহিনী ও কট্টরপন্থীরা তাদের উপদ্রব শুরু করেছে। শোভারানি মন্ডল নামে এক মহিলা তার ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে খুন হয়েছেন। বহু জায়গায় লুঙ্গিবাহিনী বাড়িতে ঢুকে ঢুকে বিজেপি কর্মীদের মারধর করছে। পরিস্থিতি এমন যে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু করার অনুরোধ জানিয়েছেন। অনেকে বিজেপি কর্মীদের বাঁচানোর জনন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছেন।

বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত বলেছেন যে তার কাছে একের পর এক কর্মীর ফোন আসছে। যেখানে তারা তাদের উপর আক্রমনের কথা বলছেন। স্বপ্নন দাশগুপ্ত বলেন যে তিনি এখন অসহায় অনুভব করছেন। বীরভূমের নানুরে প্রায় ১হাজার হিন্দু পরিবারের লুঙ্গিবাহিনীর ভয়ে ঘর ছাড়া বলে জানান বিজেপি নেতা।

বেছে বেছে হিন্দুদের দোকানপাঠ জ্বালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। জিহাদিদের এই তান্ডবে এক তৃণমূল কর্মীর দোকান ও পুড়ে ছাই হয়েছে।

সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। নন্দীগ্রামের কেন্দামাড়ি গ্রামে বিজেপির মহিলাদের উপর এবং নানুরের মহিলা বিজেপির কর্মীদের উপর হামলার খবর সামনে এসেছে।

আউশগ্রামে আদিবাসীদের বাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়েছে এবং আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। যাতে গ্রাম ছাড়া বহু হিন্দু পরিবার। রাজ্যজুড়ে এমন অশান্তির নিয়ে একেবারে নিশ্চুপ রয়েছে সংবাদ মাধ্যম। বেশিরভাগ মিডিয়া সরকারি বিজ্ঞাপনের লোভে চুপ রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।