নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

গোপনে তৃণমূল নেতাদের নিয়ে পিকের টিমের বৈঠক করায়, বিধায়কের অনুগামীদের সাথে চলল হাতাহাতি

বেলুড়ঃ কিছুদিন আগে দলের নেতাদের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছিলেন বালির তৃণমূল (All India Trinamool Congress) বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়া (Baishali Dalmiya)। হাওড়ার বিভিন্ন জায়গায় ওনাকে বহিরাগত তকমা দিয়ে তৃণমূলের একদল নেতাদের টাঙানো পোস্টার নিয়ে মুখ খুলে তিনি বলেছিলেন, ‘পরিবারের প্রধান প্রধানমন্ত্রীকে এরা বহিরাগত বলে, আমি তো কোন ছাড়!”। বৈশালী ডালমিয়ার এই মন্তব্য ঘিরে বেড়েছিল জল্পনা। এবার ওনার অনুগামীদের সাথে পিকের টিমের হাতাহাতির খবর প্রকাশ্যে আসতেই অস্বস্তিতে গোটা তৃণমূল।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, আজ বেলুড়ে তৃণমূলের ১৬ জন প্রাক্তন কাউন্সিলরকে বৈঠক করছিল পিকের টিম। সেখানে বঙ্গজননী কর্মসূচী নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল বলে জানা যায়। আর সেখানে বালির তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন মহিলা সভাপতি বিজয়লক্ষ্মী রাও গিয়ে বাধ সাধেন। তিনি সরাসরি প্রশ্ন তোলেন যে, কেনও বিধায়ক বৈশালী ম্যাডামকে বাদ দিয়ে এই বৈঠক ডাকা হয়েছে?

আইপ্যাকের মেম্বারদের সামনে সরব হন বালির প্রাক্তন তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা সভাপতি। এরপর প্রাক্তন কাউন্সিলরদের সঙ্গে শুরু হয় বচসা। এমনকি বচসা বেড়ে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতিও হয়। বিজয়লক্ষ্মী অভিযোগ করে বলেন যে, ওনাকে মারধোর করা হয়েছে। যদিও স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব ওনার সমস্ত অভিযোগ খারিজ করে দেয়। এই ঘটনার কথা বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়ার কাছে যেতেই তিনি আকাশ থেকে পড়েন। তিনি সরাসরি আইপ্যাকের টিমের বিরুদ্ধে আঙুল তুলে বলেন, ওদের ভুমিকায় আমি অবাক! এরা দলের ভালো চাইছে, না দল ভাগ করতে চাইছে সেটা বোঝা মুশকিল।

এর আগেও তৃণমূলের অনেক নেতাই পিকের টিমের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছিল। আর এখন পিকের টিমের বৈশালী ডালমিয়ার সঙ্গে এহেন আচরণে অস্বস্তিতে তৃণমূল। এর আগেই তৃণমূলের অনেক নেতা মন্ত্রী বেসুরো গেয়েছেন, আর এই ঘটনার পর অনেকের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা।

Related Articles

Back to top button