নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

মহিলাদের ব্ল্যাকমেল আর তোলাবাজিতে অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা, প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত বিজেপি নেত্রী

বনগাঁঃ বাগদা থানার অন্তর্গত মন্ডবঘাটা এলাকায় মহিলাদের ব্ল্যাকমেল করে তোলাবাজি করার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল নেত্রী মাধুরী সরকার ঘনিষ্ঠ এক নেতার বিরুদ্ধে। মহিলাদের ব্ল্যাকমেল করার প্রতিবাদ করায় বনগাঁর বিজেপি নেত্রী সোমা সরকারকে মা’র’ধ’রের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের অভিযুক্ত নেতার বিরুদ্ধে।

জানা গিয়েছে যে, তৃণমূল নেত্রী মাধুরী সরকার ঘনিষ্ঠ উত্তম নামের অভিযুক্ত যুবক এলাকার মহিলাদের কাছ থেকে তোলাবাজি করেন। এছাড়াও এলাকায় দালালিও করেন তিনি। দিনকয়েক ধরে টাকা নিয়ে এলাকার এক মহিলার সঙ্গে বচসা চলছিল অভিযুক্তের। এরপর ওই মহিলা বিজেপি নেত্রী সোমা সরকারের কাছে সাহায্যে আবেদন নিয়ে যান। সোমা সরকার মহিলাদের ব্ল্যাকমেল করার প্রতিবাদ করায় উত্তম নামের ওই অভিযুক্ত যুবক ওনাকে মা’র’ধ’র করেন।

আক্রান্ত বিজেপি নেত্রী সোমা সরকার জানান, ‘এলাকায় আমি বিজেপি করি বলে অনেকদিন ধরেই আমার উপর রাগ ছিল তৃণমূলের। আমার কাজ অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানো। এলাকার মহিলাদের সাথে ঘটে যাওয়া এই অত্যাচার আমি সহ্য করতে না পেরে প্রতিবাদ করেছিলাম। আর তাঁর জেরেই আমাকে মা’র’ধ’র করে উত্তম নামের ওই যুবক।”

সোমা সরকার আরও জানান, ‘উত্তম এলাকায় মহিলাদের ব্ল্যাকমেল করে তোলা আদায় করে। একজন মহিলার থেকে ১৫ হাজার টাকা নিয়ে আর ফিরিয়ে দিচ্ছিল না উত্তম। আমি ওই মহিলাকে টাকা পাইয়ে দেওয়ার জন্য বাগদা থানায় অভিযোগ করতে গিয়েছিলাম। থানা থেকে ফেরার সময় রাস্তায় উত্তমের সঙ্গে দেখা হয়। আর তখনই সে আমাকে ধরে মা’র’ধ’র করে।” আপাতত অভিযুক্ত যুবককে আটক করে পুলিশ।

অভিযুক্ত যুবক যে তৃণমূলের কেউ সেটা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। তৃণমূলের বাগদা ব্লকের সভাপতি অগর হালদার জানান, ‘শুনেছি একজন মহিলাকে মা’র’ধ’র করা হয়েছে। কিন্তু এর সঙ্গে তৃণমূলের কোনও সম্পর্ক নেই। অভিযুক্ত যুবক তৃণমূলের কেউ না। বিজেপি অপপ্রচার চালিয়ে ব্যক্তিগত ঘটনাটিকে রাজনীতির রঙ দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে।”

Related Articles

Back to top button