নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

দলীয় বিধায়ককে চামার, ক্রিমিনাল আর ত্রাণের টাকা লুণ্ঠনকারী বললেন তৃণমূল নেতা! ভাইরাল হল অডিও

মালদাঃ নিজেরাই নিজেদের দুর্নাম করা শুরু করল তৃণমূল কংগ্রেস? সম্প্রতি একটি অডিও ক্লিপ ভাইরাল হওয়ার পর এমনই প্রশ্ন উঠে আসছে। অডিও ক্লিপে একজন বিধায়ক আর শীর্ষ নেতার মধ্যে অন্তর্দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে এসেছে। অডিও ক্লিপে তৃণমূলের শীর্ষ নেতা দলেরই বিধায়কের বিরুদ্ধে বলেন, ‘দল এখন ক্রিমিনাল, চামারকে নির্বাচনে দাঁড় করিয়েছে। ও এতদিন বন্যা ত্রাণের কয়েক কোটি টাকা খেয়েছে। এবার বাংলার আবাস যোজনা থেকে ২৫০ কোটি টাকা খাবে।” এই অডিও ক্লিপ ফাঁস হওয়ার পর শাসক দলে তুলকালাম কাণ্ড বেঁধে গিয়েছে।

অডিও ক্লিপ ফাঁস হওয়ার পর পরস্থিতি এতটাই খারাপ হয়ে গিয়েছে যে, খোদ তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে সেই অডিও ক্লিপ পাঠানো হচ্ছে। এবার দলনেত্রীই ব্যবস্থা নেবেন। যদিও আমাদের পক্ষ থেকে সেই অডিও ক্লিপের সত্যতা যাচাই করা হয়নি।

অডিও ক্লিপে মালদার তৃণমূল কংগ্রেস নেতা আনিমুল হককে মালদার হরিশচন্দ্রপুরের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক তজমুল হোসেনের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শোনা গিয়েছে। আনিমুলবাবু বন্যা ত্রাণের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ-এর অভিযোগ তুলেছেন বিধায়ক তজমুল হোসেনের বিরুদ্ধে। এমনকি আমিনুল এটাও বলেছেন যে, বিধায়ক বাংলার আবাস যোজনা থেকে ২৫০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করবেন। অডিও ক্লিপ ফাঁস হওয়ার পর মালদার তৃণমূল নেতৃত্বের কাছে লিখিত অভিযোগ পড়েছে।

অডিও ক্লিপ ফাঁস হতেই মালদা জেলার বিজেপির সাধারণ সম্পাদক কিষাণ কেডিয়া বলেন, ‘ফের প্রকাশ্যে এল শাসক দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। এই সরকার যে কাটমানি আর লোকের টাকা খাবার সরকার, সেটা আবারও বোঝা গেল। মানুষ যেদিন বুঝবে এদের কুকীর্তির কথা, সেদিন এরাজ্যে বিজেপি সরকার গড়বে।” যদিও, আমিনুলবাবু দাবি করেছেন যে, ওনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে ওনাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button