নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

উলটপুরান! এবার পুলিশের বিরুদ্ধে বিজেপির হয়ে কাজ করার অভিযোগ তৃণমূলের!

নন্দীগ্রামঃ এবার পুলিশের বিরুদ্ধে গুরতর অভিযোগ করে বসল তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) কর্মীরা। আর সেই অভিযোগেই আজ তারা নন্দীগ্রামে পথও অবরোধ করে। পুলিশের বিরুদ্ধে তল্লাশির নামে হেনস্থার অভিযোগ করেছে তৃণমূল কর্মীরা। আর এই ঘটনার প্রতিবাদে আজ বৃহস্পতিবার নন্দীগ্রামের ভূতার মোড়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষুব্ধ ঘাসফুল কর্মীরা। তাঁরা অভিযোগ করে জানিয়েছে যে, পুলিশ শুভেন্দু অধিকারীর লোকজনের সঙ্গে মিলে বাড়ি তল্লাশির নামে হেনস্থা করছে সাধারণ মানুষদের। যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে পুলিশ।

বলে রাখি, মঙ্গলবার নন্দীগ্রামে একটি অরাজনৈতিক সভার আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে প্রধান বক্তা ছিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। শুভেন্দুর ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়ার সময় বিজেপির কর্মীদের গাড়িতে হা’ম’লা’র অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। এই হা’ম’লা’য় ১৫ জন বিজেপি কর্মী গুরুতর আহত হন। তাঁদের নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

গতকাল শুভেন্দু অধিকারী আহত বিজেপি কর্মীদের দেখতে নন্দীগ্রাম হাসপাতালে গিয়েছিলেন। সেখানে তিনি বলেছিলেন, ওঁরা আমাকে না মারতে পেরে নিরীহ কর্মীদের মারছে। বিজেপির গাড়িতে হামলার অভিযোগ দায়ের করা হয় নন্দীগ্রাম থানায়। কয়েকজন ব্যক্তির নামও নেওয়া হয় সেখানে। এরপর থেকেই পুলিশ নন্দীগ্রামের ভূতার মোড সংলগ্ন গ্রামে তল্লাশি শুরু করে। রাতের অন্ধকারে অভিযুক্তদের ধরার জন্য যায় পুলিশ। কয়েকজনকে এই ঘটনার দায়ে গ্রেফতারও করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

রাতে তল্লাশি চালানোর প্রতিবাদে তৃণমূল কর্মীরা আজ বিক্ষোভ দেখায়। তাঁরা অভিযোগ করে বলে, রাতে সবার বাড়ির দরজা ধাক্কাচ্ছে পুলিশ। এমনকি পুলিশের পোশাকে শুভেন্দুর অনুগামীরাও আছে বলে অভিযোগ করে তাঁরা। আর পুলিশের এহেন কাজের প্রতিবাদেই তাঁরা আজ এই পথ অবরোধ করে। যদিও সমস্ত অভিযোগ খারিজ করেছে পুলিশ। এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, যাদের নামে অভিযোগ করা হয়েছে শুধুমাত্র তাঁদের বাড়িতেই তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button