Press "Enter" to skip to content

বুরহান ওয়ানির স্বপ্ন চুরমার করে দিলো ভারতীয় সেনা, ৩১ বছরে প্রথমবার জেহাদি মুক্ত হল জম্মু কাশ্মীরের ত্রাল

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ জম্মু কাশ্মীর (Jammu Kashmir) পুলিশ দাবি করেছে যে, পুলওয়ামা জেলার ত্রালে হিজবুল মুজাহিদ্দিনের (Hizbul Mujahideen) আর কোন সন্ত্রাসী নেই এখন। ১৯৮৯ থেকে উপত্যকায় অশান্তি ছড়ানোর পর এরকম এই প্রথমবার হল। দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার ত্রালের চৈবা উলার এলাকায় সেনার সাথে রাতভর হওয়া সংঘর্ষে তিন মুজাহিদ্দিন নিকেশ হওয়ার পর জম্মু কাশ্মীর পুলিশ এই দাবি করে।

আইজি বিজয় কুমার ট্যুইট করে লেখেন, আজকের এই সফল অভিযানের পর ত্রাল এলাকায় এবার আর একটাও হিজবুল মুজাহিদ্দিনের সন্ত্রাসী নেই। ১৯৮৯ এর পর এরকম প্রথম হল। কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে পড়ার পর এখানে হিজবুল মুজাহিদ্দিনের প্রকোপ দিনের পর দিন বেড়েই চলছিল। উপত্যকায় হিজবুল মুজাহিদ্দিনের কয়েক হাজার ক্যাডার ছিল। বুরহান ওয়ানি, জাকির মুসা, হাম্মাদ খান সমেত হিজবুলের অনেক শীর্ষ কম্যান্ডার ত্রাল থেকেই ছিল।

আরেকদিকে, অনন্তনাগ জেলার বিজবিহাড়া এলাকায় CRPF জওয়ানদের উপর হওয়া সন্ত্রাসী হামলার পর এলাকার সুরক্ষা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। হামলার পর পালিয়ে যাওয়া জেহাদিদের তল্লাশিতে আশেপাশের এলাকায় অভিযান চালাচ্ছে সেনা। খবর পাওয়া গেছে যে, CRPF এর উপর দুজন জেহাদি হামলা করেছিল। তাঁরা স্কুটি করে এসেছিল আর হামলা করে পালিয়ে গেছিল। এই ঘটনা নিয়ে পুলিশ মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে। জানিয়ে দিই, এই ঘটনার এক CRPF এর জওয়ান শহীদ হয়েছেন। আর এক নিরীহ শিশুর মৃত্যু হয়েছে জেহাদিদের গুলিতে।

আরেকদিকে বান্দিপোরা জেলায় মোটর সাইকেল করে এসে জেহাদিরা CRPF এর একটি ঘেরাটোপের পাশে হাওয়ায় গুলি চালায়। পুলিশ জানায়, নাকাবন্দি করা হয়ে স্কুটি করে আসা দুই জেহাদি হাওয়ায় ফায়ারিং করে সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এরপর সেনা এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে।