নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

নেশার ঠেকের প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত ফুটবলার, গুলি চালাল তৃণমূলের কর্মীরা

ডায়মন্ড হারবারঃ তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিজের গড় ডায়মন্ড হারবারে এক ফুটবলারকে গুলি করার অভিযোগ উঠেছে শাসক দলের কর্মীদের বিরুদ্ধে। আক্রান্ত ফুটবলার তৃণমূলের কর্মী হিসেবে পরিচিত। মদ-গাঁজার আসরের প্রতিবাদ করায় ওই ফুটবলারকে গুলি করার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে ডায়মন্ড হারবার পুরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডে। আক্রান্ত হওয়ার পর ফুটবলারকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

ঘটনার পর অভিযুক্ত তৃণমূল কর্মী বুদ্ধদেব চিত্রকর, সৌরিশ দে ও রাজেশ পাণ্ডে নামের তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অন্যদিকে বিরোধী দল বিজেপি এই ঘটনাকে শাসক দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বলে আখ্যা দিয়েছে।

জানা গিয়েছে যে, বিশাল খেয়ারি নামের এক ফুটবলারের উপর শুক্রবার ডায়মন্ড হারবারের ১২ নম্বর ওয়ার্ডের কলোনির একটি মাঠে আক্রমণ করা হয়। বিশাল এলাকার উঠতি ফুটবলার ও প্রতিবাদী যুবক নামেই পরিচিত। দুষ্কৃতীদের গুলি বিশালের পায়ে লেগেছে বলে জানা গিয়েছে। দলীয় কর্মীদের হাতে আক্রান্ত বিশাল জানিয়েছেন, ‘বন্দুক দেখানোয় আমি ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। ওদের অনেক অনুরোধ করেছিলাম আমাকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু আমার কথা ওঁরা শোনেনি। আমার উপর গুলি চালায় ওঁরা, সেটা আমার পায়ে লাগে। আমি এর বিচার চাই।”

স্থানীয় বাসিন্দারা এলাকার তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদেরই এই ঘটনার জন্য দায়ী করেছেন। তাঁদের দাবি অভিযুক্তরা সবাই তৃণমূলের লোক। স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরেই কলোনির মাঠে মদ-গাঁজার আসার বসছে। শুক্রবারও একই কাজ চলছিল। সেই সময় তৃণমূল কর্মী তথা ফুটবলার বিশালের বাবা এই ঘটনার প্রতিবাদ করেন। দুষ্কৃতীরা বিশালের বাবার সঙ্গে বচসায় জড়ায়। এরপর বিশাল সেখানে যাওয়ার পর তাঁর উপর গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। বিশালের ডান পায়ে গুলি লাগে।

এই ঘটনার পর স্থানীয়রা অভিযুক্ত সৌরিশকে হাতেনাতে ধরে ফেলে আর তাঁকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। স্থানীয়রা জানিয়েছে যে, অভিযুক্ত সৌরিশ তৃণমূলেরই সমর্থক। পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে।

Related Articles

Back to top button