নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

দেওয়াল লিখনে নিজেদের নেতাদের নামই ভুল লিখল তৃণমূল কর্মীরা! ২০ টাকার পাউচের কামাল বলছে জনতা

কলকাতাঃ রাজ্য জুড়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি তুঙ্গে। শনিবার ২৭ মার্চ রাজ্যের ৩০টি আসনে প্রথম দফার নির্বাচন হতে চলেছে। বৃহস্পতিবারই প্রথম দফার নির্বাচনের প্রচার বন্ধ হয়ে যাবে। আর তাঁর আগে ওই ৩০টি আসনে সমস্ত দল গুলো পুরো শক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ সকাল সকালই দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার পাথরপ্রতিমায় একটি জনসভা করছেন। যদিও এই আসনে দ্বিতীয় দফায় ১ এপ্রিল ভোট নেওয়া হবে।

আরেকদিকে, আজ পূর্ব-পশ্চিম মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়ায় শেষ দিনের প্রচারে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে গেরুয়া শিবির। আর এই ৩০টি আসনে ভোটারদের মন জয় করতে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, বিজেপির সাংসদ গৌতম গম্ভীর, বিজেপি নেতা মিঠুন চক্রবর্তী, শুভেন্দু অধিকারী, বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং অন্যান্যরা একাধিক সভা করছেন।

তবে এবারের নির্বাচনী প্রচারে অদ্ভুত অদ্ভুত কিছু দেওয়া লিখন চোখে পড়েছে। ওই দেওয়াল লিখন দেখে ভোটাররা প্রার্থীদের ভোট দেওয়ার আগে হেসে লুটোপুটি খাচ্ছে। কারণ দেওয়াল লিখনে যেমন রয়েছে একাধিক ভুল, তেমনই নিজের দলের প্রচার করতে গিয়ে উল্টে দলেরই নাম খারাপ করে দেওয়া হচ্ছে। সেরকমই এক দেওয়াল লিখনের চিত্র ধরা পড়ল হুগলির সিঙ্গুরের তৃণমূল প্রার্থী বেচারাম মান্নার সমর্থনে।

ওই দেওয়া লিখনে তৃণমূল প্রার্থী বেচারাম মান্নাকে ‘বেচারা মান্না” বানিয়ে দেওয়া হয়েছে। যদিও ওই দেওয়াল লিখন সিঙ্গুরের ঠিক কোন জায়গায় লেখা হয়েছে সেটা আমাদের পক্ষে জানা সম্ভব হয়নি, আর দেওয়াল লিখনের সত্যতাও আমাদের পক্ষে যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

আরেকদিকে, বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের বিজেপি প্রার্থী তন্ময় ঘোষের সমর্থনে দেওয়াল লিখনেও আজব ভুল ধরা পড়েছে। ওই দেওয়াল লিখনে তন্ময় ঘোষকে পদ্মফুল চিহ্নে ভোট না দিয়ে জোড়াফুল চিহ্নে ভোট দেওয়ার আবেদন করা হয়েছে। আরেকদিনে রাজ্যে মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের সমর্থনে লেখা দেওয়ালেও ধরা পড়েছে বড় ভুল। সেখানে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের বদলে লেখা হয়েছে ‘জ্যোপ্রিয় মল্লিক।”

আরেক জায়গায় তৃণমূলের দেওয়াল লিখনে উন্নয়নের বদলে খাওয়া খায়ির কথা লেখা হয়েছে। ওই দেওয়াল লিখনে লেখা হয়েছে, ‘দিদি তুমি যুগ যুগ জিও, নিজেও খেয়ো আমাদেরও দিও।” আরেকটি জায়গায় তৃণমূলের দেওয়াল লিখনে লেখা হয়েছে, ‘মরে গেলেও ২০০০ পাই, দিদিমনি তোমাকে চাই।” তবে এই ভাইরাল দেওয়াল লিখন গুলোর সত্যতা যাচাই করা আমাদের পক্ষে সম্ভব হয়নি। প্রতিটি দেওয়াল লিখনই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

Related Articles

Back to top button