Press "Enter" to skip to content

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার অপরাধে কৃষকের চাষ বন্ধ করল তৃণমূল! প্রশাসনের দ্বারস্থ পরিবার

শেয়ার করুন -

তমলুকঃ বিজেপিতে যোগ দেওয়ার অপরাধে কৃষককে তাঁর জমিতে চাষাবাস করতে না দেওয়ার অভিযোগ উঠল শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। কৃষকের পরিবার থেকে চাষ করতে না দেওয়ায় বিডিও, থানা এবং জেলাশাসকের কাছে অভিযোগ পত্র পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুভেন্দু অধিকারী গড় পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকে। অসহায় কৃষককে চাষাবাস করতে না দেওয়ায় ক্ষোভে ফুঁসছে স্থানীয়রা।

তমলুকের কৃষক রাধেশ্যাম মালাকার দীর্ঘদিন ধরে চাষাবাসের সঙ্গে যুক্ত। কিছুদিন আগে তিনি বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। আর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই নানান সমস্যার সন্মুখিন হতে হচ্ছে ওনাকে। রাধেশ্যাম মালাকার জানান, কিছুদিন আগে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তিনি আর এরপর থেকে তৃণমূল ওনাকে নিজের জমিতেই চাষ করতে দিচ্ছে না।

রাধেশ্যামবাবু বলেন, আমি এই বিষয়ে তমলুক থানা, জেলাশাসক এবং স্থানীয় বিডীও অফিসে চিঠি পাঠিয়ে গোটা বিষয় জানিয়েছি। তাঁদের থেকে এখনও কোনও উত্তর পাইনি। আর কতদিন আমি চাষ করতে পারব না তাও জানিনা।

যদিও ওই কৃষকের সমস্ত অভিযোগ খারি করে দিয়েছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। স্থানীয় পঞ্চায়েতের তৃণমূলের উপ-প্রধান নিকুঞ্জ মান্না বলেন, ‘উনি বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন বলে যে ওনাকে চাষ করতে দেওয়া হবে না, এরকম হতে পারে না। আমরা এরকম অমানবিক কাজ করি না আর এরকম কাজকে প্রশ্রয় ও দিইনা।”

আরেকদিকে ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব তীব্র নিন্দা জাহির করেছে। বিজেপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একদিকে কৃষকদের টাকা আটকাচ্ছেন, আরেকদিকে দলের দাদারা কৃষকদের চাষ করা থেকে আটকাচ্ছেন। এটাই তৃণমূলের কৃষক প্রেম। রাধেশ্যামবাবুকে চাষ না করতে দেওয়ায় স্থানীয়দের মধ্যেও ক্ষোভ দেখা গিয়েছে।