Press "Enter" to skip to content

শিলিগুড়িতে মমতার সভার দিন দল ছাড়লেন তৃণমূল নেতা! বললেন নির্দল হয়ে লড়ব

শেয়ার করুন -

শিলিগুড়িঃ তৃণমূল নেত্রীর শিলিগুড়ির সভার দিনেই দল ছাড়লেন দাপুটে নেতা। নিজের স্ত্রীকে নিয়ে দল ছাড়ার ঘোষণা করেন তৃণমূলের কাউন্সিলর নান্টু পাল। তিনি এও বলেন যে, আমি নির্দল হিসেবে লড়াই করব। টিকিট না পেয়েই নান্টু পাল দল ছাড়ার ঘোষণা করেছেন। উল্লেখ্য, তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই জেলায় জেলায় তৃণমূলের নেতাদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

একুশের নির্বাচনে তৃণমূলের দাপুটে নেতা তো দূরের কথা, অনেক দাপুটে বিধায়ক ও মন্ত্রীরা টিকিট পাননি। এদের মধ্যে অনেকেই আবার দলও ছেড়ে দিয়েছেন। নির্বাচনের আগে দলের কোন্দল নিয়ে জেরবার শাসক দল। আর এরমধ্যে তৃণমূল নেত্রীর শিলিগুড়ির সফরের দিনে দল ছাড়লেন আরও এক দাপুটে নেতা। আর দল ছেড়ে তিনি নির্দল হিসেবে নির্বাচনে লড়াই করার ঘোষণাও করে দিয়েছেন।

কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়া ওমপ্রকাশ মিশ্রকে শিলিগুড়ি বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী করেছেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওমপ্রকাশ মিশ্রর বিরুদ্ধে প্রার্থী হয়েছেন বাম-কংগ্রেস-ISF জোটের নেতা তথা শিলিগুড়ি পুরসভার প্রাক্তন মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের দাবি অনুযায়ী, ওমপ্রকাশ মিশ্রকে প্রার্থী করে শিলিগুড়ি বিধানসভায় কার্যত ওয়াকওভার দিয়ে দিয়েছেন দলনেত্রী। আরেকদিকে, ওমপ্রকাশ মিশ্রকে প্রার্থী হিসেবে মেনে না নেওয়ার কথা আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন নান্টু পাল।

আজ শিলিগুড়িতে যখন মোদী সরকারের বিরুদ্ধে পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে রাস্তায় নেমেছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তখন তৃণমূলের কাউন্সিলর নান্টু পালকে দেখা যায়নি। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, শিলিগুড়ির তৃণমূল প্রার্থী ওমপ্রকাশ মিশ্র প্রসঙ্গে তৃণমূলের বিক্ষুব্ধ কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠক করেছিলেন তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী অরুপ বিশ্বাসও। কিন্তু বৈঠকের পরেও চিঁড়ে ভেজেনি। আর সেই বৈঠকের পরই সস্ত্রীক দল ছাড়ার ঘোষণা করেন নান্টু পাল। সঙ্গে নির্দল প্রার্থী হওয়ারও ঘোষণা করেন তিনি।