নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

ভারতীয় পতাকার বদলে উড়ল তৃণমূলের ঝাণ্ডা! নেতারা গাইলেন জাতীয় সঙ্গীত! ভাইরাল ভিডিও

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গতকালই ৭৩তম স্বাধীনতা দিবস পালন করল গোটা ভারত। প্রতিটি রাজ্যেই এই নিয়ে ছিল সাজসাজ রব। দিল্লির রাজপথ থেকে শুরু করে বাংলার রেড রোড, কোথাও ছিল না আয়োজনের ঘাটতি। এবার দিল্লির রাজপথে প্রজাতন্ত্র দিবসে কোনও বিদেশি অতিথি উপস্থিত হতে পারেন নি করোনার কারণে। তবে তা নিয়েও ছিল না খামতি। বিদেশি অতিথির বদলে সাফাইকর্মী, নার্স, মেথর, নির্মান কর্মীদের নিয়েই এবারের প্রজাতন্ত্র দিবস পালিত হয়েছে।

তথ্য অনুযায়ী, মোট ৫৬৫ জন সাধারণ ভারতীয় নাগরিক ২৬ জানুয়ারি দিল্লির রাজপথে প্রথমবার প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ দেখার জন্য উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা সবাই এই আমন্ত্রণ এবং সুযোগ পেয়ে ধন্য হয়েছেন। আমন্ত্রিতদের তালিকায় একজন বাঙালি শ্রমিকও ছিলেন। যিনি কেন্দ্রের সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রোজেক্টে কর্মরত।

তবে, গতকালের এই অনুষ্ঠান নিয়ে একটি ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকে চারিদিকে নিন্দার ঝড় বয়ে গিয়েছে। ভিডিওটি নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা তথা নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী।

শুভেন্দুবাবু ভিডিওটি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘লজ্জাজনক যে তৃণমূল সদস্যরা পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর বিধানসভার প্রাক্তন বিধায়ক পূর্ণ চন্দ্র বাউরির উপস্থিতিতে জাতীয় সঙ্গীতকে অপমান করছে। এছাড়াও, প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনের জন্য জাতীয় পতাকার পরিবর্তে টিএমসি পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক।” শুভেন্দুবাবু নিজের ট্যুইটে তৃণমূল কংগ্রেসের অফিসিয়াল ট্যুইটার হ্যান্ডেলকেও ট্যাগ করেছেন।

বলে দিই, গতকালই শুভেন্দুবাবু অভিযোগ করে বলেছিলেন যে, উনি নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারিয়েছেন বলে ওনাকে প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। শুভেন্দু অধিকারীর এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। এবং ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর চারিদিকে নিন্দার ঝড়ও বয়ে যায়।

Related Articles

Back to top button