Press "Enter" to skip to content

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে বাঙালি হিন্দুদের উপর যে অত্যাচার শুরু হয়েছিল তা এখনও চলছে: তুলসী গাবার্ড

শেয়ার করুন -

এক সময় বঙ্গভূমি হিন্দুদের আর্থিক ও সংস্কৃতিক রাজধানী ছিল। ভারত খণ্ডের বঙ্গপ্রদেশ পুরো দক্ষিণ ও পূর্ব এশিয়াকে নেতৃত্ব দিত। তবে হাজার বছর ধরে হিন্দুদের পতনের সাথে সাথে বঙ্গভূমির গুরুত্বও হ্রাস পেয়েছে। এখন বঙ্গভূমির একটা বড়ো অংশ যা বাংলাদেশ নামে পরিচিত হিন্দুদের জন্য নরকে পরিণত হয়েছেন। বহু রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, বাংলাদেশে শেখ হাসিনা সরকার যতদিন আছে ততদিন হিন্দুরা সেখানে কোনোমতে টিকে থাকতে পারবে, তবে শেখ হাসিনার সরকারের পতনের পর বাংলাদেশে হিন্দুদের অস্থিত সংকটে পড়বে।

সম্প্রতি বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী মোদীর সফরের পর হেফাজতে ইসলামের নেতৃত্বে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। বেশকিছু স্থানে কট্টরপন্থীরা হিন্দুদের বাড়ি ঘর জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছাই করে দিয়েছে। বাংলাদেশে হিন্দুদের এমন করুন অবস্থা নিয়ে মুখ খুলেছেন আমেরিকান রাজনীতিবিদ তুলসী গাবার্ড।

১৯৭১ থেকে শুরু করে কিভাবে বাংলাদেশকে হিন্দু শূন্য করার উপর কাজ চলছে তা বিস্তারিতভাবে বিশ্বের সামনে তুলে ধরেন তুলসী গাবার্ড। সোশ্যাল মিডিয়ায় এক ভিডিও প্রকাশ করে তিনি বাংলাদেশের হিন্দুদের উপর ইসলামিক জিহাদিদের আক্রমনের ঘটনাগুলির বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলেন।

তুলসী গাবার্ড  বলেন, ৫০ বছর আগে বাংলাদেশকে হিন্দুশুন্য করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল যা এখনও চলছে। পাকিস্তানি সেনা ১৯৭১ সালে লক্ষ লক্ষ হিন্দুদের হত্যা করে, ধর্ষন করেছিল। ১৯৭১ সালে ২৫ শে জগন্নাথ হলে একরাতে ১০ হাজার হিন্দুকে মেরে ফেলা হয়েছিল। এই গণহত্যা ১০ মাস চলছিল যাতে ২০ থেকে ৩০ লক্ষ মানুষকে হত্যা করা হয়েছিল।বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পরেও কিভাবে ইসলামিক কট্টরপন্থীর জেহাদ চালাচ্ছে তা নিয়েও মন্তব্য করেন তুলসী গাবার্ড।