নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

তেলেনিপাড়া ঘটনা নিয়ে চাঞ্চল্য! মমতা সরকারকে বরখাস্ত করার দাবি জানিয়ে ঝড় টুইটারে

হুগলীর তেলেনিপাড়া এলকায় যে সংঘর্ষ তৈরি হয়ে তা নিয়ে দারুন চাঞ্চল্য তৈরি হতে দেখা যাচ্ছে। রাজনৈতিক ভাবে তৃণমূল সরকারকে আক্রমনের পর এবার টুইটারেও তেলেনিপাড়ায় হওয়া ঘটনা নিয়ে এবার টুইটারে মমতা সরকারের বিরুদ্ধে ঝড় উঠতে শুরু হয়েছে। টুইটারে মমতা ব্যানার্জীর সরকারকে বরখাস্ত করার দাবি জানিয়ে ট্রেন্ড শুরু হয়েছে।

দেশজুড়ে লকডাউনের মধ্যেও হুগলি থেকে উন্মাদী ভিড়ের উপদ্রবের ঘটনা সামনে এসেছে। হুগলী জেলার তেলনিপাড়া এলকায় কট্টরপন্থীরা দুরন্ত তান্ডব চালিয়েছে বলে জানা গেছে। যার জেরে এখন টুইটারে পশ্চিমবঙ্গ থেকে মমতা ব্যানার্জীর সরকারকে বরখাস্ত করার দাবি উঠেছে। মমতা সরকার বরখাস্ত করো এই দাবি জানিয়ে বর্তমানে টুইটারে প্রায় ৮০ হাজারের বেশি টুইট করা হয়েছে।

তেলনিপাড়ায় কট্টরপন্থীরা যে উপদ্রব চালিয়েছে তা ইরাক ও সিরিয়ার সন্ত্রাসের কথা মনে পড়িয়ে দিয়েছে। যে এলকায় ঘটনাটি ঘটেছে সেখানের সাংসদ বিজেপি নেত্রী লকেট চ্যাটার্জী। বিজেপির তরফ থেকে বলা হয়েছে, বেছে বেছে হিন্দুদের বাড়ি ঘরে হামলা চালানো হয়েছে।

 

টুইটারে অনেকে বলেছেন বাংলাকে বাঁচাতে হলে, হিন্দুদের বাঁচাতে হলে মমতার সরকারকে বরখাস্ত করতে হবে। কেউ আবার ঘটনার ভাইরাল ভিডিও শেয়ার করে বলেছেন মমতা ব্যানার্জীর উচিত পদত্যাগ করা।

বিজেপি নেত্রী লকেট চ্যাটার্জী বলেছেন, হিন্দুদের বাড়িতে বোমা ছোড়া হয়েছে এবং এক তরফা আক্রমন করা হয়েছে।  কৈলাস বিজয়বর্গীয় বলেছেন প্রশাসন দর্শক হয়ে বসে আছে। মমতা ব্যানার্জীকে প্রশ্নঃ করে  কৈলাস বিজয়বর্গীয় বলেছেন এভাবে আর কতদিন চলবে

Back to top button
Close