নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

কলকাতা থেকে গ্রেফতার দুই বাংলাদেশি, উদ্ধার ভুয়ো পরিচপত্র ও পাসবুক

কলকাতাঃ নির্বাচনী ইস্তেহারে বিজেপি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল যে, বাংলায় তাঁরা ক্ষমতায় এলে অবৈধ অনুপ্রবেশ রুখবে। গেরুয়া শিবির বরাবরই রাজ্য সরকারকে বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গাদের আশ্রয়দাতা হয়ে উঠেছে। এবার খাস কলকাতা থেকে দুই অবৈধ বাংলাদেশি গ্রেফতার হওয়ায় অনুপ্রবেশ নিয়ে আবারও প্রশ্ন উঠছে। দিন কয়েক আগে মলদহে থেকে এক সন্দেহভাজন চীনা নাগরিক গ্রেফতার হওয়ার পর চারিদিকে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল। এমনকি তাঁর থেকে চাঞ্চল্যকর তথ্যও মিলেছে। আর এবার কলক্তার শ্রীভূমি এলাকা থেকে দুই অবৈধ বাংলাদেশির গ্রেফতারির পর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

বিজেপি বরাবরই অভিযোগ করে এসেছে বাংলা অনুপ্রবেশকারী আর দুষ্কৃতীদের সেফহোম হয়ে উঠেছে। কিছুদিন আগে নিউটাউন দুই ভিনরাজ্যের লুকিয়ে থাকা এবং এনকাউন্টারের ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর বঙ্গ বিজেপি রাজ্য সরকারকে নিশানা করেছিল। আর এবার বিধাননগর এলাকা থেকে দুই বাংলাদেশি গ্রেফতারি বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, শনিবার রাতে ওই দুই সন্দেহভাজনকে শ্রীভূমি এলাকায় ঘোরাঘুরি করতে দেখে জিজ্ঞাসাবাদ করে পিসিআর ভ্যানে থাকা পুলিশকর্মীরা। তাঁদের থেকে পরিচয়পত্র দেখতে চাইলে তাঁরা ভুয়ো আধারকার্ড ও ব্যাঙ্কের পাসবুক দেখায়। এরপর তাঁদের থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে জিজ্ঞাবাদ করলে চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসে। ধৃত দুই ব্যক্তি পুলিশকে জানান, তাঁরা ভারতীয় না। তাঁরা আসলে বাংলাদেশি। একজনের নাম মণি গাজি আরেকজনের নাম আরিফুল ইসলাম। এরপরই অবৈধভাবে সীমান্ত পাড় করে এদেশে ঢোকার দায়ে দুই বাংলাদেশি নাগরিককে গ্রেফতার করে পুলিশ। আজ তাঁদের আদালতে তোলা হবে। তাঁদেরকে জেরার জন্য হেফাজত চাইবে পুলিশ।

কিছুদিন আগে নিউটাউনে এতবড় কাণ্ড ঘটে যাওয়ার পর এবার তাঁর পাশেই দুই বাংলাদেশি নাগরিককে ভুয়ো পরিচয়পত্র সহ গ্রেফতার করার ঘটনায় নানান প্রশ্ন উঠে আসছে। এঁরা এই করোনা পরিস্থিতিতে কীভাবে সীমান্ত পার করছে? কেই বা এদের আশ্রয় দিচ্ছে আর ভুয়ো পরিচয়পত্র বানিয়ে দিচ্ছে, সেটা নিয়ে ধোঁয়াশা থেকেই যাচ্ছে।

Related Articles

Back to top button