আন্তর্জাতিকনতুন খবর

বাংলাদেশের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে করোনার থাবা! সংক্রমণ ছড়ালে সবথেকে বেশি ক্ষতির সন্মুখিন হবে বাংলাদেশ

ওয়েবডেস্কঃ গোটা বিশ্বে করোনাভাইরাসের প্রকোপ জারি আছে। আর এর মধ্যে বিশ্বের সবথেকে বড় রিফিউজি ক্যাম্পে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের মামলা সামনে এসেছে। বাংলাদেশের (Bangladesh) রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে (rohingya refugee camp) কড়া নাড়ল করোনা।

বাংলাদেশের শরণার্থী সহায়তা কমিশনের সভাপতি মেহবুব আলম তালুকদার বৃহস্পতিবার দিন জানান, কক্স বাজারের রিফিউজি ক্যাম্পে করোনার মামলা সামনে এসেছে। শরণার্থী এবং আরও একজনের করোনার রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। এরপর তাদের আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে।

সংযুক্ত রাষ্ট্রের শরণার্থী এজেন্সির মুখপাত্র লুইস ডোনাভেন দ্য অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে বলেন, শরণার্থী শিবিরে দুই করোনা পজেটিভ রোগীর সাথে যারা যারা সংস্পর্শে এসেছিল, তাদের সনাক্ত করার প্রক্রিয়া চলছে। এর সাথে সাথে দুজনকেই আইসোলেশনে পাঠিয়ে চিকিৎসা চলছে। দ্বিতীয় সংক্রমিত ব্যাক্তি রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে থাকে না। তিনি কক্স বাজারের বাসিন্দা।

আপনাদের জানিয়ে দিই, ওই ক্যাম্পে দশ লক্ষ রোহিঙ্গা মুসলিমের বাস। আর সেখান থেকে করোনার মামলা সামনে আসার পর চিন্তা বেড়ে গেছে। আধিকারিকরা জানান, এটি একটি গম্ভীর ইস্যু, কারণ ওই ক্যাম্পে দশ লক্ষেরও বেশি রোহিঙ্গা বসবাস করে আর তাদের দেওয়া সুবিধা অনেক কম। তাই সেখান থেকে করোনা ছড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি।

আর সবথেকে বড় ব্যাপার হল, কক্সবাজারে বিপুল মানুষ বাস করেন আর সেই জন্য এটি বড়সড় বিপদের আভাস মাত্র। বাংলাদেশের কক্সবাজার বাকি এলাকা গুলোর মতো অতটাও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন না। আর ওই এলাকায় আগাগোড়াই বিশুদ্ধ পানিয় জলের অভাব। সেখানে করোনার থেকে বাঁচার উপায় কঠিন থেকে কঠিনতম হতে পারে।

Related Articles

Back to top button