নতুন খবররাজনীতি

উদ্ধব ঠাকরের বড়ো মন্তব্য! বললেন কখনো হিন্দুত্বের সাথ ছাড়বো না।

শিবসেনা পার্টির উৎপত্তি কংগ্রেসের হাত ধরেই। ইন্দিরা গান্ধীর ইশারায় মহারাষ্ট্রে উঠা নানা আন্দোলনকে আটকানোর জন্য শিবসেনা পার্টির উৎপত্তি হয়েছিল। তখন এইপার্টির মূল কাজ ছিল মহারাষ্ট্রে মারাঠিভাষী ও অন্য ভাষী মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরি করা। উদাহরণস্বরূপ, পশ্চিমবঙ্গে এখন বাঙালি বনাম হিন্দিভাষী ইস্যু তৈরি করে আসল সমস্যা থেকে মানুষের মুখ ফেরানোর চেষ্টা চলছে। সেই একইভাবে শিবসেনা মহারাষ্ট্রে কাজ করতো। কিন্তু ইন্দিরা গান্ধী নিজের কাজ হতেই শিবসেনাকে ছুঁড়ে ফেলে দেয়। এরপর শিবসেনা হিন্দুত্ববাদী হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করে।

তখন থেকে বিজেপির সাথে হাত মিলিয়ে শিবসেনা হিন্দুত্ববাদী পার্টি হিসেবে জোট করে মহারাষ্ট্রে ক্ষমতায় রয়েছে। তবে এখন আরো একবার পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠেছে। শিবসেনা প্রমুখ মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী পদে আসীন হওয়ার জন্য বিজেপির হাত ছেড়ে কংগ্রেস পার্টির হাত ধরেছে। যা নিয়ে  রাজনৈতিক মহলে নানা প্রশ্নঃ উঠতে শুরু হয়েছে। এত বছর ধরে হিন্দুত্বের গুনগান গেয়ে এখন কি শিবসেনা সেকুলার রূপ ধারণ করবে তাই নিয়েও প্রশ্নঃ উঠেছে।

কারণ শিবসেনা সোনিয়া গান্ধীকে কট্টর খ্রিস্টান ও হিন্দু বিরোধী বলে দাবি করে এসেছে। এখন সেই শিব সেনা কংগ্রেস পার্টির সাথে হাত মিলিয়েছে। শিবসেনা-এনসিপি-কংগ্রেস সাধারণ ন্যূনতম কর্মসূচির উপস্থাপনায় ‘ধর্মনিরপেক্ষ’ শব্দের উল্লেখ সত্ত্বেও, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে বড়োমন্তব্য করেছেন। উদ্ধব ঠাকরে  (Uddhav Thackeray) বলেছেন যে তিনি কখনও হিন্দুত্ববাদের আদর্শকে ত্যাগ করবেন না। শিবসেনা প্রধান ঠাকরে বিধানসভায় বলেন যে হিন্দুত্ববাদের আদর্শ তাদের থেকে আলাদা করা যায় না।

সমাবেশের বিশেষ অধিবেশনকে সম্বোধন করে তিনি বলেছিলেন যে আমি এখনও হিন্দুত্ববাদের আদর্শের সাথে রয়েছি যা আমার থেকে বিচ্ছিন্ন হতে পারে না। প্রাক্তণ মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিষকে আক্রমন করতে গিয়ে ঠাকরে এ কথা বলেছেন। পাল্টা প্রশ্ন উঠছে যে শিবসেনা পদের লোভে এতদিনের সাথী বিজেপিকে ছেড়ে দিল, তাহলে তারা কিভাবে হিন্দুত্বের সাথে টিকে থাকার পতিশ্রুতি দিতে পারে। অন্যদিকে দেবেন্দ্র ফড়নবিষকে বলেছেন আমি আবার ফেরত আসবো। একটি কবিতার ভাষায় উনি বলেন “আমার জল কমে গেছে বলে আমার তীরে বাড়ি বানিয়ে ফেলো না, আমি সমুদ্র আবার আসবো ফিরে।”

Related Articles

Back to top button