নতুন খবর

মোদী সরকারের বড় জয়, নাগরিকতা সংশোধনী বিল নিয়ে কোন মন্তব্য করবেনা জানিয়ে দিলো রাষ্ট্রসঙ্ঘ

মঙ্গলবার সংযুক্ত রাষ্ট্র (UN) ভারতের নাগরিকতা সংশোধন বিল নিয়ে কোন মন্তব্য করবেনা বলে জানিয়ে দিলো। সংযুক্ত রাষ্ট্র জানিয়েছে, তাঁদের একমাত্র চিন্তা হল কোন দেশ যেন বৈষম্যমূলক আইনের ব্যাবহার না করে। সংযুক্ত রাষ্ট্রের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস (António Guterres) এর উপ মুখপাত্র ফারহান হকের (Farhan Haq) কাছে যখন এই বিল পাশ হওয়া নিয়ে সংযুক্ত রাষ্ট্রের প্রতিক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন করা হয়, তখন উনি বলেন, আমি যতদূর জানি এই বিল আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সম্পন্ন হবে। ঘরোয়া আইনসুলভ প্রক্রিয়া না হওয়া পর্যন্ত আমরা এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করব না।

Farhan Haq

উনি নিজের সাপ্তাহিক ব্রিফিংয়ের সময় বলেন, আমাদের চিন্তা শুধুমাত্র এটি সুনিশ্চিত করা জন্য যে, সরকার অ-বৈষম্যমূলক আইনের যেন দুর্ব্যবহার না করে। আপনাদের জানিয়ে রাখি, গত সোমবার লোকসভায় নাগরিকতা সংশোধন বিল ৩১১ টি ভোট পেয়ে পাশ হয়ে গেছে। এই বিলের বিপক্ষে লোকসভায় ৮০ টি ভোট পড়েছে। এই বিলে আফগানিস্তান, বাংলাদেশ আর পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পারসি আর খ্রিষ্টান ধর্মের শরণার্থীদের জন্য নাগরিকতার নিয়ম আরও সহজ বানানোর নিয়ম আছে।

বর্তমানে কোন ব্যাক্তিকে ভারতীয় নাগরিকতা পাওয়ার জন্য কমপক্ষে ১১ বছর এইদেশে ভারতে থাকা অনিবার্য। এই সংশধনের মাধ্যমে সরকার নিয়ম আরও সহজ বানিয়ে নাগরিকতা অর্জন করার সীমা এক থেকে ছয় বছর পর্যন্ত করতে চাইছে।

যদি এই বিল পাশ হয়ে যায়, তাহলে আফগানিস্তান, পাকিস্তান আর বাংলাদেশ থেকে সমস্ত অবৈধ প্রবাসী হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পারসি আর ইসাই ধর্মের মানুষদের নাগরিকতা দেওয়া হবে। এছাড়াও তিনটি দেশের সমস্ত ছয় ধর্মের মানুষদের ভারতীয় নাগরিকতা পাওয়ার নিয়মে ছাড় দেওয়া হবে। যেই সমস্ত প্রবাসীরা ছয় বছর ভারতে থাকবে, তাঁদের এখানকার নাগরিকত্ব দেওয়া হবে প্রথমে এটি ১১ বছর ছিল।

Related Articles

Back to top button