Press "Enter" to skip to content

উন্নাও এর নির্যাতিতার পরিবারকে ২৫ লক্ষ টাকা ও একটি ঘর দেওয়ার ঘোষণা যোগী সরকারের

শেয়ার করুন -

উত্তর প্রদেশের যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) সরকার শনিবার উন্নাও (Unnao) এর নির্যাতিতা পরিবারকে ২৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করে। এরসাথে সাথে সরকার ফাস্টট্র্যাক আদালতের গঠন করার কথা জানিয়েছে। রাজ্য সরকার নির্যাতিতার পরিবারে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার মাধ্যমে ঘর দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেছে।

নির্যাতিতার পিতা সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথা বলার সময় বলেন, ‘আমার পরিবারকে একমাত্র একটি মেয়েই ছিল। যে সবসময় ন্যায় এর জন্য লড়াই করত, অন্যায়ের বিরুদ্ধে গর্জে উঠত। ও একাই পরিবারের সুরক্ষার জন্য কোমর বেঁধে দাঁড়িয়েছিল। ওর মৃত্যুর পর এবার আমাদের ন্যায় পাওয়ার আর কোন আশাই রইল না। এবার আমাদেরও জ্যান্ত জ্বালিয়ে দেওয়া হোক।”

নির্যাতিতার বাবা জানান, ‘আমরা আমদের মেয়ের মুখও দেখতে পাইনি। আমরা চেয়েছিলাম অভিযুক্তদের কড়া শাস্তি হোক। ওরা আমদের পরিবারকে প্রতারিত করেছে।” নির্যাতিতার কাকি জানান, ‘আমারও দুই মেয়ে আছে, কিন্তু ওর মতো এত সাহস আর হিম্মত ওদের মধ্যে নেই। ও একাই সবার বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে পড়ত। ওর অনেক সাহস ছিল, ওর জায়গা কোনদিনও পূরণ হবেনা।”

নির্যাতিতার কাকা জানান, ‘সকালে আমি চা খেতে যাচ্ছিলাম, তখনই একজন ফোন করে বলে আপনার ভাইয়ের মেয়েকে জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে। যখন আমরা হাসপাতালে যাই, তখন শুনতে পারি যে, ওকে লখনউতে রেফার করা হয়েছে। এরপর জানতে পারলাম যে, এইমাত্র গেট থেকে অ্যাম্বুলেন্স গেলো আর সেটার মধ্যেই ওকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। আমরা ওকে শেষ দেখা দেখতেও পাইনি।”

উনি বলেন, যদি ন্যায় হত তাহলে কি আর এরকম ঘটনা ঘটত? নির্যাতিতার কাকা জানান, এর আগে দুইবার প্রধানের ছেলে ওকে মারধর করেছিল। আমাদের মেয়ে বলত, তোমরা চিন্তা করবে না, আমি এদের দেখে নেব। এরপর প্রধানের ছেলে জেলে পাঠিয়েছিল আমাদের মেয়ে। আর সে জেল থেকে ছাড়া পেয়ে এই কাজ করে বসল।