Press "Enter" to skip to content

উত্তর প্রদেশে হিংসার জন্য সরাসরি মুসলিম সংগঠনকে দায়ী করলেন যোগীর মন্ত্রী

শেয়ার করুন -

উত্তর প্রদেশের উপ মুখ্যমন্ত্রী ডঃ দীনেশ শর্মা বলেন, নাগরিকতা সংশোধন আইনের বিরুদ্ধে রাজধানী লখনউ সমেত রাজ্যের অন্যান্য জেলায় হিংসা ছড়ানোর পিছনে পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়ার হাত আছে। উনি বলেন, পিএফআই জঙ্গি সংগঠন সিমির অংশ। এই সংগঠনের সাথে বিদেশী শক্তির হাত আছে।

রবিবার লোক ভবনে প্রেসবার্তায় উপ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্যে হিংসার পিছনে সিমির ছোট সংগঠন পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়ার হাত আছে। এই সংগঠনে এমন এমন মানুষ আছে, যারা আগে সিমির হয়ে কাজ করত। উনি সমাজবাদী পার্টির সভাপতি অখিলেশ যাদবের অভিযোগ দায়িত্বজ্ঞান হীন।

উপ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, অখিলেশের সাথে ওনার পরিবারই সহমত হয়না। মুলায়ম সিংহ যাদবের ছোট বৌমা অপর্ণা যাদব বলছেন এই আইন খুব ভালো। এই আইনের মাধ্যমে বঞ্চিতরা নিজেদের অধিকার পাবে। উপ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এই আইনের কারণে কারোর কোন ক্ষতি হবেনা, উলটে নাগরিকতার অভাবে ভোগা লক্ষ লক্ষ হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, পারসি, জৈন আর ইসাই শরণার্থীরা ভারতীয় নাগরিকতা পাবে।

উনি বলেন, ২০১৪, ২০১৭ আর ২০১৯ এবং কিছুদিন আগে হওয়া বিধানসভার উপ নির্বাচনে জনতা যাদের সম্পূর্ণ ভাবে বহিস্কার করেছে, তারাই পর্দার আড়ালে থেকে হিংসায় উসকানি দিচ্ছে। কানপুরের সপা বিধায়ক হিংসা ছড়ানোরদের পাশে আছে।

উপ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্যের সম্পত্তিতে হওয়া লোকসানের ক্ষতিপূরণ উপদ্রবিদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হবে। রাজ্য সরকার উপদ্রবিদের চিহ্নিত করে নোটিশ পাঠাচ্ছে। রাজ্যের আইন এবং শান্তি বজায় রাখার জন্য সরকার কোন সমঝোতা করবেনা।