নতুন খবরভারতবর্ষ

সারজিল ইমামকে গ্রেফতার করতে দিল্লী পৌঁছে গেল যোগী পুলিশের দুটি টিম! ভারত ভাঙার স্বপ্ন দেখেছিল JNU ছাত্র

দেশজুড়ে NRC বা CAA নিয়ে যে বিরোধ চলছে তার পেছনে মূল একটা এজেন্ট প্রকাশ পেয়েছে। সাম্প্রদায়িক উস্কানি দিয়ে দাঙ্গা ফ্যাসাদ করিয়ে উত্তরপূর্ব ভারতকে ভারত দেশ থেকে আলাদা করার একটা বড়ো ষড়যন্ত্র প্রকাশ পেয়েছে। NRC,CAA এর বিরুদ্ধে বিরোধের সময় প্রদর্শণকারীদের হাতে জাতীয় পতাকা, মুখে জাতীয় সঙ্গীত দেখা গেছে ঠিকই। তবে শাহীন বাগ প্রদর্শনের মাস্টার মাইন্ড নিজের ভাষণেই সমস্থ ষড়যন্ত্র উগরে ফেলেছে। তার ভাষণে এই বিরোধিতার মূল উদেশ্য ও পরবর্তী টার্গেট ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছে।

থেকে এতদিন শুধুমাত্র ‘ভারত তেরে টুকরে হঙ্গে’ শ্লোগান শোনা যেত। তবে এর ছাত্র সারজিল ইমাম ভারতকে ভাঙার পুরো পরিকল্পনা করে ফেলেছে তা সে নিজের মুখেই প্রকাশ করেছে। সারজিল ইমাম ভিড়ের সামনে বলেছে ‘আমরা উত্তর-পূর্ব কে ভারত থেকে সম্পূর্ণ আলাদা করে দিতে পারি। সম্পূর্ণভাবে না পারলেও আমরা কিছুদিনের জন্য আলাদা তো করতেই পারি। আসাম কে আলাদা করা আমাদের দায়িত্ব।’ এখন তিন রাজ্যের পুলিশ সারজিল ইমামকে গ্রেফতার করার তাগিদে মাঠে নেমে পড়েছে। এমনকি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকেও একশন মুডে দেখা যাচ্ছে।

সারজিল ইমামকে গ্রেফতার করার জন্য যোগী সরকারও তার শক্তি প্রয়োগ করতে শুরু করেছে। পুলিশের দুটি টিম দিল্লী পৌঁছে গেছে। ইমামের এর সন্ধানে যোগী পুলিশ তল্লাশি শুরু করেছে। ইমামকে খুঁজে পেলেই যোগী পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে উত্তরপ্রদেশে নিয়ে যাবে। ভারত ভাঙার জন্য JNU ছাত্র যে স্বপ্ন দেখেছিল তার উপরেই ওষুধ প্ৰয়োগ করবে যোগী পুলিশ।

সারজিল ইমাম ভিড়কে উস্কানি দিয়ে বলেছিল আমরা ৫ লক্ষ লোক একত্র করতে পারলেই আসামকে একেবারের জন্য ভারত থেকে আলাদা করে দেব। যদি একেবারে জন্য না হয় তবে কিছুদিনের জন্য তো করবোই। সারজিল ইমাম এর সেই ভাষণ ভাইরাল হয়ে পড়ে। যার পর থেকে তিন রাজ্যের পুলিশ সারজিল ইমামকে গ্রেফতারের কাজে নেমে পড়েছে। আর এখন UP পুলিশও দিল্লীতে এসে তল্লাশি শুরু করেছে।

Back to top button
Close