Press "Enter" to skip to content

পাঁচ আগস্ট অযোধ্যাকে ত্রেতা যুগের মতো সাজানোর নির্দেশ যোগী আদিত্যনাথের

শেয়ার করুন -

অযোধ্যাঃ মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) বলেন, পাঁচ আগস্ট হতে চলা ভূমি পূজনের শুভ মুহূর্ত পাঁচশো বছরের প্রচেষ্টার পর এসেছে। এটা সবথেকে ভালো মুহূর্ত কারণ, অযোধ্যায় আরও একবার দীপাবলি পালিত হবে। উনি সন্ন্যাসীদের বলেন, অযোধ্যাকে ত্রেতাযুগের মতন সাজিয়ে তুলুন। সমস্ত সন্ত আর মহাত্মারা নিজের নিজের জায়গায় চার আগস্ট অখণ্ড রামায়ণ পাঠ শুরু করুন আর পাঁচ আগস্ট পূর্ণ আহুতি দিন। মঠ মন্দিরে প্রদীপ জ্বালান আর সুন্দরকান্ডের পাঠ করুন।

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ করসেবকপুরমে সাধু-সন্তদের সাথে বৈঠকে এই বলেন। উনি বলেন, কিছু মানুষ ভূমি পূজনের মুহূর্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন। এই শুভ সময় পাঁচশো বছর পর এসেছে। যোগী আদিত্যনাথ বলেন, করোনার ভাইরাসের সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে দেশের সমস্ত সাধু-সন্তদের রাম মন্দিরে ডাকা সম্ভব না। তাঁদের আমাদের বাধ্যকতার কথা বুঝতে হবে, আমরা এখন অপারক। উল্লেখ্য, আজ যোগী আদিত্যনাথ ভূমি পূজনের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে অযোধ্যা গেছিলেন। সেখানে তিনি আধিকারিকদের সাথে প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করেন এবং সাধু-সন্তদের সাথে অনুষ্ঠানের সমস্ত রূপরেখা তৈরি করেন।

সামাজিক দূরত্বের কথা মাথায় রেখে সব নিয়ম কানুন মেনেই এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে। উৎসব উপলক্ষ্যে প্রতিটি বাড়িতে প্রদীপ জ্বালানো হবে। সরয়ূ নদীর তীরে করা হবে বিশাল আরতি পর্ব। বিরোধীদের শত বিরোধিতা সত্ত্বেও নির্ধাতির দিনেই হবে রাম মন্দিরের ভূমি পূজো।

করোনার আবহে আয়োজিত এই ভূমি পূজোর অনুষ্ঠানে মান্য করা হবে সমস্ত করোনার বিধি নিষেধ। আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে মাত্র ২০০ জন ব্যক্তিবর্গকে। বিশ্ব হিন্দু পরিষদের তরফ থেকে মোট ১১ টি তীর্থক্ষেত্রের মাটি পাঠানো হয়েছে অযোধ্যায়, যার মধ্যে পাক অধ্যুষতি কাশ্মীরের পবিত্র সারদা পিঠের মাটিও রয়েছে। সেই সঙ্গে প্রায় ৪০ কেজি রূপোর ইট ব্যবহার করা হবে মন্দিরের ভীত তৈরিতে।