আন্তর্জাতিকখেলানতুন খবরভারতবর্ষ

রিজওয়ানের কাণ্ড নিয়ে গর্ব করেছিল ওয়াকার ইউনিস, জিহাদি চিন্তাভাবনা বলে তোপ প্রসাদের

কলকাতাঃ বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচেই নিজেদের লজ্জার রেকর্ড ভেঙে প্রথমবার ভারতকে পরাস্ত করেছে পাকিস্তান। রবিবারের এই ম্যাচে বাবরদের জয়ের পর স্বাভাবিকভাবেই চলছে নানান আলোচনা। তবে এর মাঝেই এমন কিছু মন্তব্য উঠে আসছে ক্রিকেটের পক্ষে ক্ষতিকর। ক্রিকেট একটা খেলা, কিন্তু অনেকেই এই ম্যাচের জয়-পরাজয়কে দেখছেন ধর্মীয় দৃষ্টিভঙ্গি থেকে। যা মোটেই সুখকর দৃশ্য নয়।

বাবরদের এই অসাধারণ জয়ের পর পাকিস্তানের একটি টিভি অনুষ্ঠানে ম্যাচ সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে অদ্ভুত মন্তব্য করে বসেন প্রাক্তন পাকতারকা ওয়াকার ইউনিস। তিনি বলেন, “হিন্দুদের মাঝে মহম্মদ রিজওয়ানের নমাজ পড়ার ঘটনাটা সবথেকে সন্তোষজনক মুহূর্ত। আমার দারুণ লেগেছে।” তার এই মন্তব্য করে স্বাভাবিকভাবেই নিন্দার ঝড় ওঠে। ক্রিকেটকে ধর্মের সঙ্গে মিলিয়ে দেখার এই মানসিকতার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন সকলেই। ইতিমধ্যেই এ নিয়ে মুখ খুলে ছিলেন ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে। এবার এই প্রসঙ্গে নিজের মতামত জানালেন প্রাক্তন ভারতীয় পেসার ভেঙ্কটেশ প্রসাদও।

ওয়াকারের এই মন্তব্যের উল্লেখ করে নিজের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে তিনি লেখেন, “খেলাধুলা নিয়ে এ ধরনের কথা বলার জন্য এক অন্যস্তরের জিহাদী মানসিকতা লাগে। কি লজ্জাকর একজন মানুষ।” জানিয়ে রাখি, এরআগেও পাকিস্তান তরফে এই ম্যাচ নিয়ে ধর্মীয় দৃষ্টিভঙ্গি থেকে একাধিক মন্তব্য করা হয়েছে। এমনকি পাকিস্তানের জয়কে ইসলামের জয় বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। তবে শুধু পাকিস্তানই নয়, এই পরাজয়ের পর ভারতেও বোলার মোহাম্মদ শামির ধর্মীয় পরিচয় নিয়েও যথেষ্ট আক্রমণ করেছিলেন কিছু ট্রোলার। গত কয়েকদিনে তার বিপক্ষেও সরব হয়েছেন ক্রিকেটাররা।

এবার ওয়াকারের এই মন্তব্যকে ঘিরেও তীব্র প্রতিবাদের ঝড় উঠলো সোশ্যাল মিডিয়ায়। জানিয়ে রাখি এই বিষয়ে নিজেও ক্ষমা চেয়েছেন ওয়াকার। এই ঘটনার পর মঙ্গলবার রাতে একটি টুইটে তিনি লেখেন, “মুহূর্তের ভুলে একটা মন্তব্য করে ফেলেছি। কিন্তু তাতে কারও ভাবাবেগে আঘাত দিতে চাইনি। এই অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। জাতি-ধর্ম-বর্ণের ঊর্ধ্বে গিয়ে খেলার জগৎ সকলকে এক সুতোয় বাঁধে।”

 

Related Articles

Back to top button