ইতিহাসভারতবর্ষ

আজকে পালিত হয় বিজয় দিবস! ৯৩ হাজার পাক সেনাকে বন্দি করে পাকিস্তানকে দু ভাগ করেছিল ভারতীয় সেনা!

ভারতবর্ষের ইতিহাস বইতে অত্যাচারী মুঘলদের মিথ্যাগল্প পড়ানো হলেও ভারতমাতার আসল বীরদের ইতিহাস জানানো হয় না। ভারতের ঐতিহাসিক দিনগুলি যা ভারতবাসীকে গর্বিত করবে সেই দিনগুলিকে লুকিয়ে রাখা হয়। দেশের পুরানো ইতিহাস তো দূরে থাক দেশের সেনাদের বীরত্ব পর্যন্ত জনগণের থেকে লুকিয়ে রাখা হয়। আজ ১৬ ডিসেম্বর ভারতে বিজয় দিবস (Vijay Diwas) হিসেবে পালিত হয়। কিন্তু দুঃখের বিষয় ভারতের ছাত্র ছাত্রীদের বা যুব সমাজের এ সম্পর্কে কোনো জ্ঞান নেই। মার্শাল শ্যাম মানিকসো এর নাম নিশ্চয় শুনেছেন? অবশ্য নাম নাও শুনতে পারেন। কারণ আমাদের দেশের অধিকাংশ লোকজন সিনেমাজগতের সেলিব্রেটি লোকেদের নাম,তাদের জন্মদিন মনে রাখতে ব্যাস্ত থাকে।

আজকের দিনেই ফিল্ড মার্শাল শ্যাম মানিকসো এর নেতৃত্বে হাজার হাজার পাক সৈনিককে সাফ করে পাকিস্তানকে থুতু চাটতে বাধ্য করেছিল ভারতীয় সেনা। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর আজকের দিনে বাংলাদেশকে স্বাধীন করার লড়াইতে ভারতীয় সেনা পাকিস্তানের সবথেকে বড়ো জয়লাভ করেছিল। ভারতের সেনা পাকিস্তানকে দু টুকরো করতো সক্ষম হয়েছিল। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এই জয় এতটাই বড়ো ছিল যে আজ বিশ্বের বহুপ্রান্তে ফিল্ড মার্শাল শ্যাম মানিকসো এর যুদ্ধ কৌশল শেখানো হয়।

১৯৭১ এর পাকিস্থান উপর ভারত এমন যুদ্ধনীতি প্রয়োগ করেছিলেন যে পাকিস্থানের প্রায় ৯৩,০০০ সৈনিককে বন্দী করতে পেরেছিল। বিশ্বের বেশিরভাগ দেশ পাকিস্তানের সমর্থনে ছিল, আন্তর্জাতিক চাপ ভারতের উপর ছিল। যুদ্ধ থেকে পিছু হটে যাওয়া জন্য চাপ আসছিল। তা সত্ত্বেও ভারত পাকিস্তানের ৯৩ হাজার সেনাকে বন্দি বানিয়ে বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছিল। জানিয়ে দি, শ্যাম মানিকসো ওই ৯৩,০০০ সৈনিকের বদলে POK ফিরিয়ে নিতে চেয়েছিলেন, সেই পাকঅধিকৃত কাশ্মীর যা নেহেরুরু ভুলের জন্য এখনো পাকিস্থানের দখলে রয়েছে।

শুধু এই নয়, ফিল্ড মার্শাল শ্যাম মানিকসো বাংলাদেশকে ভারতে অন্তর্ভুক্ত করতে চেয়েছিলেন। তবে ইন্দিরা গান্ধী সেনার বিরুদ্ধে গিয়ে ইসলামিক দেশ বাংলাদেশ বানিয়ে দেন। সেকুলার ও তথাকথিত বুদ্ধিজীবীরা ১৬ ডিসেম্বর দিনটিকে ভুলিয়ে দিতে চাইলেও প্রকৃত দেশপ্রেমিক ও রাষ্ট্রবাদীরা নিজের জীবনের অন্তিম দিন অবধি বিজয় দিবসকে মনে রাখবে।

Related Articles

Back to top button