নতুন খবরভারতবর্ষ

‘ভুল হয়ে গেছে’- ভারত মাতাকে নিয়ে কটু মন্তব্য করে ক্ষমা চাইলেন খ্রিস্টান পাদরি

হিন্দুরা ভারত দেশকে মাতা হিসেবে গন্য করে এবং ভারত মাতার অপমান হিন্দুদের কাছে ক্ষমার অযোগ্য। সম্প্রতি কন্যাকুমারীতে এক NGO এর উপদেষ্টা ও খ্রিস্টান পাদরি জর্জ পন্নীহার হিন্দু বিরোধী মন্তব্য করে বিপদে পড়েছেন। জর্জ পন্নীহার ওকে ভাষণ ভাইরাল হয়ে যায়। যারপর উনার উপর তামিনাড়ুতে ৩০ টি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, উক্ত পাদরি ভারত মাতাকে নিয়ে কটুশব্দ বলেছেন।

উক্ত পাদরি দেশের প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকেও নিয়েও আপত্তিজনক মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ। ভাষণ ভাইরাল হওয়ার পর তামিলনাড়ু সহ দেশের বেশকিছু প্রান্ত থেকে হিন্দুরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। যারপর চাপে পড়ে খ্রিস্টান পাদরি জর্জ পন্নীহার ক্ষমা চেয়ে নেন।

পাদরি এও দাবি করেছেন যে তার ভাষণকে এডিট করে দেখানো হচ্ছে। যাতে বিষয়টিকে অন্য এঙ্গেল দেওয়া যায়। অন্যদিকে ক্ষোভপ্ৰকাশকারীরা পাদরির দাবিকে খারিজ করবদিয়েছেন। পাদরি বলেছেন, “ভিডিও দেখে অনেকে মনে করছেন যে আমি হিন্দুদের বিরুদ্ধে বলেছি কিন্তু আমি সেইরকম কিছু বলিনি। এরপরেও যদি আমার হিন্দু ভাই বোনেদের খারাপ লেগে থাকে তাহলে আমি ক্ষমা চাইছি।”

অভিযোগ অনুযায়ী পাদরি তার ভাষণে এক বিজেপি বিধায়কের পায়ে চপ্পল না পরাকে নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন। পাদরি বলেছিলেন, “উনি চপ্পল পরেন না কারণ উনি ভারত মাতাকে কষ্ট দিতে চান না। আর আমরা চপ্পল পরি কারণ আমরা চাই না ভারত মাতার জন্য আমাদের পা নোংরা হোক, ভারত মাতার জন্য আমাদের রোগ ব্যাধি হোক।”

একইসাথে প্রধানমন্ত্রী মোদী ও অমিত শাহের উপর মন্তব্য করতে গিয়ে পাদরি বলেছিলেন, ” ঈশ্বর যদি থাকেন তাহলে মোদী ও অমিত শাহের দেহে পচন ধরবে এবং তাদেরকে পোকা ও কুকুর খাবে।”

Related Articles

Back to top button