নতুন খবরভারতবর্ষ

দিল্লীতে এত মুসলিম আছে যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাড়ি ঘিরে ফেলতে পারি, তারপর কেউ গ্রেফতার হবে না: অমানাতুল্লাহ খান,AAP নেতা

দিল্লির হিন্দু-বিরোধী দাঙ্গা সকলকে নড়িয়ে রেখে দিয়েছে। আল্লাহু আকবর এবং নারা-এ-তাকবীরের শ্লোগানের সাথে দাঙ্গাকারীরা দিল্লীতে হত্যাকান্ড চালিয়েছেন। দাঙ্গাকারীদের দল ছাদের উপর একটি করে ক্যাটালপট বা গুলতি বসিয়ে তার দ্বারা প্রচণ্ড পাথর নিক্ষেপ করেছিল, পেট্রোল বোমা এবং অ্যাসিড ইত্যাদি নিক্ষেপ করেছিল। জানিয়ে দি যে এই দাঙ্গা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ঘটেনি। দাঙ্গাটিকে খুব ভালো করে পরিকল্পনা করা হয়েছিল এবং তারপর সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী দাঙ্গাকারীরা হিন্দুদের উপর আক্রমণ করে। মুসলিম দাঙ্গাকারীদের মধ্যে থাকা বিষাক্ত মনোভাব দেখা গেছিলো তা অনেক বছর ধরে তাদের মধ্যে জমা ছিল, এবং এর ফলেই এই রক্তাক্ত দাঙ্গা হয়েছিল।

এই দাঙ্গার মূল ষড়যন্ত্রকারী হিসাবে, আম আদমি পার্টির একজন বরখাস্ত কাউন্সিলর তাহির হুসেনের হাত প্রকাশ পেয়েছে, যার প্রতিরক্ষায় বিধায়ক অমানাতুল্লাহ খান () নেমে পড়েছেন। জানিয়ে দি যে ইনি হচ্ছেন সেই আমানাতুল্লাহ খান, যিনি সর্বদা হিন্দু ও সরকারের বিরুদ্ধে বিষ বার করেন। এখন আবার তাঁর একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, যেখানে তিনি মুসলমানদের উস্কে দিতে দেখা যাচ্ছেন। এই ভিডিওটি ২০১৬ সালের ভিডিও বলা হচ্ছে।

ভিডিওটিতে মুসলমানদের উদ্দেশে আমানাতুল্লাহ খান বলেছিলেন, “আপনারা যেই উৎসাহের সাথে এখানে এসেছেন, আপনারা যদি কেবলমাত্র এই সিদ্ধান্তটি নিয়ে নেন যে আজকের পরে যদি একটাও গ্রেপ্তারী হয় তাহলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাড়িকে ঘেরাও করা হবে, তবে আমি সম্পূর্ণ বিশ্বাসের সাথে বলতে পারি যে এদের সাহস হবে না আপনাদের একটা বাচ্চার দিকেও চোখ তুলে তাকানোর।আমি কেবল এই কথাটি বলতে এসেছি যে দিল্লিতে বিপুল সংখ্যক মুসলমান রয়েছে, কিন্তু এখানে আজ যেই কয়েকজন মুসলমান এসছে, শুধু তারা যদি এই সিদ্ধান্ত নেয় তাহলে কারুর সাহস হবে না কিছু করার।”

বর্তমানে আমানাতুল্লাহ খান দলের বরখাস্ত কাউন্সিলর তাহির হুসেনকে বাঁচাতে কঠোর পরিশ্রম করছেন। জানিয়ে দি যে তাহিরের বিরুদ্ধে আইবি কর্মকর্তা অঙ্কিত শর্মাকে হত্যার অভিযোগ রয়েছে। AAP দল তাহিরকে সাময়িক বরখাস্ত করার মাত্র 16 মিনিট পরে আমানাতুল্লাহ খান তার টুইটার একাউন্ট থেকে টুইট করে তাকে নির্দোষ ঘোষণা করেন।

দিল্লিতে CAA নিয়ে হওয়া উপদ্রবের সময়েও তাঁর বিরুদ্ধে হিংসা প্ররোচিত করার অভিযোগ উঠেছিল। নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিক্ষোভের যখন প্রদর্শন হচ্ছিলো তার মধ্যে AAP বিধায়ক আমানাতুল্লাহ খানকেও দেখা গিয়েছিল। যার কিছু সময় পরেই ওই অঞ্চলে হিংসার খবর পাওয়া যাচ্ছিল।

Back to top button
Close