নতুন খবরভারতবর্ষভিডিওরাজনীতি

‘রাম রাজত্বে অসুরক্ষিত ছিল মহিলারা, অপমানে আত্মহত্যা করেছিল সীতা” বিতর্কিত বয়ান কুণাল ঘোষের

আগরতলাঃ পশ্চিমবঙ্গে তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর থেকে তৃণমূল কংগ্রেস (All India Trinamool Congress) বিপ্লব দেবের (Biplab Deb) ঘাঁটি ত্রিপুরাকে (Tripura) পাখির চোখ করে রেখেছে। প্রায় দিনই তৃণমূলের বড়বড় নেতা, মন্ত্রী ও সাংসদরা ত্রিপুরায় গিয়ে বিজেপির দুর্নাম করছেন ও তৃণমূলের সংগঠন মজবুত করার কাজ করে চলেছেন। ত্রিপুরায় এবার তৃণমূলের নেতা ঋতব্রত, কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh) ও দোলা সেনদের বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এবছরই ত্রিপুরায় পুরোভোট হতে চলেছে, আর সেই ভোটে লড়াই করার প্রস্তুতিও নিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ এখন বেশীরভাগ সময়ই ত্রিপুরায় ঘাসফুলের সংগঠন মজবুত করার কাজে লেগে রয়েছেন। আর তাঁর কারণে ওনাকে বিপ্লবের রাজ্যে বেশীরভাগ সময়ই থাকতে হচ্ছে।

তবে ইতিমধ্যে কুণাল ঘোষকে নিয়ে একটি তুমুল বিতর্ক ছড়িয়েছে। ওনার বিরুদ্ধে ভগবান রাম ও সীতাদেবীকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করার অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। পাশাপাশি কুণাল ঘোষের বিরুদ্ধে ধর্মঅবমাননারও অভিযোগ তোলা হয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে।

উল্লেখ্য, কুণাল ঘোষ ত্রিপুরায় তৃণমূলের একটি সভাতে বক্তব্য রাখার সময় ভগবান রামকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ‘অযোধ্যার রাম রাজত্বে রাজার সিংহাসনে রামচন্দ্র ছিলেন। কিন্তু রানির আসনে মা সীতা ছিলেন না কেন? মা সীতাকে কেন অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল? কেন লব-কুশকে জঙ্গলে জন্ম নিতে হয়েছিল? কেন মা সীতাকে অপমানে, লজ্জায় অতল প্রবেশের মধ্যে দিয়ে আত্মহত্যা করতে হয়েছিল? বিজেপির রামায়ণে সীতাদের কোনও জায়গা নেই।”

কুণাল ঘোষের এই বয়ানের ভিডিও সোশ্যালে মিডিয়ায় ভাইরাল (Viral Video) হয়ে যায়। এরপরই বিজেপির একের পর এক নেতা কর্মী ও সমর্থকরা কুণাল ঘোষকে আক্রমণ করা শুরু করেন। এমনকি কুণাল ঘোষকে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ারও দাবি তোলা হয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে।

Related Articles

Back to top button