আন্তর্জাতিকনতুন খবরভারতবর্ষভারতীয় সংস্কৃতি

সুদূর পোল্যান্ডের লাইব্রেরির দেওয়ালে খোদাই করা ‘উপনিষদের বাণী”, ছবি দেখে আবেগে ভাসল ভারতীয়রা

নয়া দিল্লীঃ উপনিষদের (Upanishad) জ্ঞান, শুধুমাত্র আধ্যাত্মিক আকর্ষণের ক্ষেত্র নয় বরং বিজ্ঞানেরও একটি দৃষ্টিভঙ্গি। ভারতের (India) এই প্রাচীন সংস্কৃতি এখন বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে গিয়েছে। ইউরোপিয় দেশ সুদূর পোল্যান্ডেও (Poland) দেখা গেল ভারতীয় প্রাচীন সংস্কৃতির ছোঁয়া। সেখানে একটি লাইব্রেরির দেওয়ালে খোদাই করা রয়েছে ভারতের প্রাচীন ধর্মগ্রন্থ উপনিষদের জ্ঞান। সেই ছবি টুইটারে শেয়ার করেছে পোল্যান্ডের ওয়ারশায় ভারতীয় দূতাবাসের অফিসিয়াল হ্যান্ডেল। ওয়ারশ বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরির দেওয়ালে খোদাই করা প্রাচীন ধর্মগ্রন্থের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল হারে ভাইরাল হচ্ছে।

পশ্চিমের লোকেরা সবসময়ই ভারতীয় বৈদিক সংস্কৃতি সম্পর্কে কৌতূহলী ছিল আর সেটা আবারও প্রমাণ করল পোল্যান্ড। ভারতীয় দূতাবাস এই ছবি শেয়ার করা মাত্রই সোশ্যাল মিডিয়ায় আগুনের মতো ছড়িয়ে পড়ে। নেটিজেনরা বিশেষ কৌতূহলের সঙ্গে সেই ছবি শেয়ার করা শুরু করে দেয়।

পোল্যান্ডের ভারতীয় দূতাবাস ছবিটি শেয়ার করে লিখেছে, ‘”কি মনোরম দৃশ্য !! এটি ওয়ারশ বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরির একটি দেওয়াল যার উপর উপনিষদ খোদাই করা আছে। উপনিষদ হল হিন্দু দর্শনের প্রাচীন বৈদিক সংস্কৃত গ্রন্থ যা হিন্দুধর্মের ভিত্তি গঠন করে।”

উল্লেখ্য, এই প্রথম না যে ভারতের প্রাচীন সংস্কৃতি বিদেশে স্বীকৃতি পেল। এর আগে ইসলামিক দেশ সৌদি আরব তাঁদের পাঠ্যক্রমে রামায়ণ ও মহাভারত যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সবথেকে অবাক করা বিষয় হল, তাঁরা পড়ুয়াদের রামায়ণ, মহাভারত পড়াবে ইতিহাস হিসেবে কোনও গল্প হিসেবে নয়।

সৌদি আরবের এই সিদ্ধান্ত ভারতের পৌরাণিক চরিত্রগুলিকে মান্যতা দেওয়ার কাজ করবে। কারণ কাহিনী হিসেবে পড়ালে সেটি কাহিনী বা লোককথা হিসেবেই থেকে যাবে, কিন্তু ইতিহাস হিসেবে পড়ানো হলে তা এটা প্রমাণ করবে যে হাজার হাজার বছর আগে ভারতে এই ঘটনাগুলি বাস্তবে ঘটেছিল।

Related Articles

Back to top button