নতুন খবরভারতবর্ষ

আন্দোলনরত কৃষকদের জন্য ওয়াশিং ম্যাশিন, গিজার, Wi-Fi, ইনভার্টার! রাতে দেখানো হচ্ছে সিনেমা

নয়া দিল্লীঃ কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দিল্লীর সীমান্তবর্তী এলাকায় আন্দোলন করা কৃষকদের আজ ১৫ তম দিন। তিনটি কৃষি আইন ফেরত নেওয়ার দাবি নিয়ে কৃষকরা রাস্তায় শিকর গেঁড়ে বসে আছে। এই কৃষকরা পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, রাজস্থান সমেত বিভিন্ন রাজ্য থেকে দিল্লীর সীমান্তে এসে প্রতিবাদে বসেছে। সীমান্তে আন্দোলনে বসা কৃষকদের যাতে সমস্যা না হয়, সেই জন্য তাদের জন্য ওয়াই ফাই, ওয়াশিং ম্যাশিন, গিজার, রুটি ম্যাশিন থেকে শুরু করে থিয়েটারের সুবিধাও দেওয়া হয়েছে।

সিঙ্ঘু বর্ডারে রোজ কৃষকরা সকাল সকাল আন্দোলনে বসে। এরপর সন্ধ্যে বেলায় পাঞ্জাবি গান আর সিনেমা দেখে সারাদিনের কষ্ট নিবারণ করে। এরজন্য বর্ডারে ট্র্যাক্টর ট্রলিতে বড়বড় স্পীকারও লাগানো হয়েছে।

কৃষকরা ছয় মাস আন্দোলন করার প্রস্তুতি নিয়ে এসেছে। বর্ডারে আসা কৃষকরা নিজেদের সাথে প্রচুর রেশন নিয়ে এসেছে। তাদের রুটি বানানোর যাতে সমস্যা না হয়, সেই কারণে বড় রুটি ম্যাশিন আনা হয়েছে। এক ঘণ্টায় ওই ম্যাশিনের মাধ্যমে ২ হাজার রুটি তৈরি হয়।

কৃষকদের লাগাতার মোবাইল ইন্টারনেটের সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। এরজন্য প্রদর্শন স্থলে অনেক ওয়াই-ফাই লাগানো হয়েছে। এর সাথে সাথে সেখানে ইউজার নেম আর পাসওয়ার্ড সার্বজনীন করা হয়েছে। পাঞ্জাবি গায়ক এমি বির্ক কৃষকদের সমর্থন করেছেন। উনি বুধবার সিঙ্ঘু বর্ডারে পৌঁছে গান গেয়ে কৃষকদের মনোরঞ্জন করে ওনাদের উত্সাহিত করেছেন।

কৃষকদের যাতে বিদ্যুতের কোনও সমস্যা না হয়, তারজন্য ইনভার্টার আর সোলার প্যানেলের সাথে সাথে বড়বড় ব্যাটারি আনা হয়েছে। এছাড়াও লাগাতার খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কৃষকদের জামা-প্যান্ট ধোয়ার সুবিধা করিয়ে দিতে ওয়াশিং ম্যাশিনের ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button