নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

জোটে বড়সড় ফাটল কাটোয়ায়, মনোনয়ন জমা দিতে গিয়ে অবাক কংগ্রেস প্রার্থী

কাটোয়াঃ তৃণমূল আর বিজেপিকে হারিয়ে রাজ্যে ক্ষমতায় আসার জন্য জোট করেছিল বাম আর কংগ্রেসরা। এরপর সেই জোটে যুক্ত করা হয় আব্বাস সিদ্দিকীর দল ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টকেও। কিন্তু তৃণমূল-বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করার চেয়ে নিজেদের মধ্যেই বেশি লড়াই করতে হচ্ছে সংযুক্ত মোর্চাকে। কারণ জোট ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই জোটে একের পর এক ফাটলের চিত্র ধরা পড়েছে।

সম্প্রতি এই ফাটল ধরা পড়েছে পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ায়। সেখানে মনোনয়ন জমা দিতে গিয়ে অবাক হয়ে যান কংগ্রেস প্রার্থী প্রবীর গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি দেখেন ওনার আগেই ওই কেন্দ্রে মনোনয়ন জমা দিয়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন সিপিএম প্রার্থী সুদীপ বাগচি। সংযুক্ত মোর্চার তরফ থেকে ওই কেন্দ্রটি কংগ্রেসের জন্য ছাড়া হয়েছিল, কিন্তু কংগ্রেসের প্রার্থীর মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগেই সিপিএম নেতা নিজের নামে মনোনয়ন জমা দিয়ে যান।

কাটোয়া কেন্দ্রে সিপিএম প্রার্থী সুদীপ্ত বাগচির হয়ে দেওয়াল লিখন এবং প্রচারও শুরু হয়ে গিয়েছে। কংগ্রেস প্রার্থী দাবি করেছেন যে, বামেরা নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেবে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তুমুল কটাক্ষ করেছেন তৃণমূল প্রার্থী রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়।

কাটোয়ার কংগ্রেস প্রার্থী প্রবীরবাবু জানান, ‘সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী হিসেবে আমার নাম মনোনীত হয়েছে, আশাকরি সিপিএম তাঁদের প্রার্থী প্রত্যাহার করবে। এই কেন্দ্রে আমিই প্রার্থী থাকব।” আরেকদিকে, সিপিএমের হয়ে কাটোয়া কেন্দ্রে মনোনয়ন জমা দেওয়া সুদীপ্ত বাগচি জানান, আমার প্রার্থীপদ প্রত্যাহার নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য নেতৃত্ব। আমার কিছু করার নেই। তবে দিনের শেষে আমরা একই সঙ্গে লড়ব।”

আরেকদিকে ওই কেন্দ্রে তৃণমূলে প্রার্থী রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় কটাক্ষ করে বলেন, ‘সিপিএম কংগ্রেসের উপর ভরসা করতে পারছে না বলেই নিজেদের প্রার্থী দিয়েছে।” বলে রাখি, আগামী ২২ এপ্রিল কোটোয়া বিধানসভা কেন্দ্রে নির্বাচন আর ৭ এপ্রিল মনোনয়ন প্রত্যাহার করার শেষ সময়। তাঁর আগে সিপিএম না কংগ্রেস প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন, সেটাই দেখার বিষয়।

Related Articles

Back to top button