Press "Enter" to skip to content

ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি পশ্চিমবঙ্গের! কট্টরপন্থীরা জ্বালিয়ে দিল ৫ টি ট্রেন, আতঙ্কে ভুগছে মানুষ।

শেয়ার করুন -

পশ্চিবঙ্গের (West Bengal) পরিস্থিতি লাগাতার ভয়ানক হয়ে উঠছে। বিশেষ করে শুক্রবার দুপুর থেকে কট্টরপন্থীরা চরম উপদ্রব শুরু করেছে। উৎপাতের কারণে পশ্চিমবঙ্গে ব্যাপকভাবে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। শুক্রবার দিন দুপুর থেকে কট্টরপন্থীরা আতঙ্কবাদীদের মতো ব্যাবহার করতে শুরু করে। চলন্ত ট্রেনে যাত্রীদের লক্ষ করে পাথর ছোড়া, এম্বুলেন্স ওর পথ আটক করে ভাঙচুর চালানো, স্টেশনে ভাঙচুর ইত্যাদি নানা অপরাধ মূলক কার্যকলাপ চালায় কট্টরপন্থীরা। উলুবেড়িয়ায় দূর পাল্লা ও লোকাল ট্রেন আটক করে ভাঙচুর চালানো হয়। বেলডাঙায় পুরো স্টেশন জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছাই করে দেওয়া হয়। তবে আতঙ্ক এখনও শেষ হয়নি। আজ সকাল থেকে কট্টরপন্থীরা CAB এর উপর প্রতিবাদ জানানোর অজুহাতে উপদ্রব শুরু করে দিয়েছে।

গতকাল ট্রেনের উপর পাথর ছোড়ার মামলা সামনে এসেছিল আর আজ মুর্শিদাবাদের কৃষ্ণপুরে পরপর পাঁচটি ট্রেনে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার খবর সামনে এসেছে। বিক্ষোভকারীরা ২০০২ সালে যেমন ভাবে গুজরাটের গোধরাতে ট্রেনে আগুন ধরিয়ে দিয়েছিল। আজ ঠিক তেমন ভাবেই মুর্শিদাবাদের কৃষ্ণপুরে পাঁচটি ট্রেনে আগু  ধরিয়ে দিলো দুষ্কৃতীরা। তবে এই ঘটনায় কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

জানিয়ে দি, CAB বিল উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্ব দেওয়ার বিল। কারোর নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার নিয়ে এতে কোনো কিছু বলা হয়নি। তা সত্ত্বেও কট্টরপন্থীরা দিকে দিকে বিরোধ দেখাতে, সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস করতে ও অশান্তি ছড়াতে মাঠে নেমে পড়েছে। শুক্রুবার দুপুর থেকে CAB বিলের প্রতিবাদ জানিয়ে ভিন্ন ভিন্ন এলাকায় অশান্তি করতে নেমে পড়ে। দেশের নানা প্রান্তে এই উৎপাত চললেও সবথেকে বেশি ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে পশ্চিবঙ্গ।

অসম এবং পূর্বের রাজ্য গুলোতে নাগরিকতা সংশোধন বিল (Citizenship Amendment Bill) নিয়ে কড়া আপত্তি থাকলেও বিক্ষোভকারীরা এতটা হাঙ্গামা সৃষ্টি করতে পারেনি যতটা এরাজ্যের বিক্ষোভকারীরা করছে। রাজ্যে একের পর এক ট্রেন বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে, চরম অশান্তিতে ভুগছে নিত্যযাত্রী থেকে দূরপাল্লার যাত্রীরা। অন্যান্য রাজ্য গুলোতে অশান্তি না ছড়ানর জন্য রাজ্য সরকার আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়েছিল, কিন্তু এরাজ্যে সরকার শুধু মুখেই হুঁশিয়ারি দিয়ে চলেছে, কার্যকর কিছুই হচ্ছেনা। আর সেই জন্য আতঙ্কে গোটা বাংলার মানুষ।