নতুন খবরভারতবর্ষ

৪ঠা মে থেকে ট্রেন চলবে কি না সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে আগামীকাল

নয়া দিল্লীঃ রেল মন্ত্রালয় (Railway Ministry) আর ভারত সরকারের (Central Government) বরিষ্ঠ আধিকারিকরা ২৯ এপ্রিল বুধবার গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করতে চলেছে। ওই বৈঠকে আবারও ট্রেন চালানো নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সুত্র অনুযায়ী, লকডাউনের (Lockdown) পরের পরিস্থিতির জন্য এই মিটিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে।  এই বৈঠকে করোনার আতঙ্কের মধ্যে রেলওয়ে আলাদা আলাদা বিষয়ে চর্চা করবে। আপনাদের জানিয়ে দিই, ভারতীয় রেলওয়ে ২২ মার্চ থেকে সমস্ত প্যাসেঞ্জার ট্রেন বন্ধ করে দিয়েছে। আপাতত এই ট্রেন গুলোকে ৩রা মার্চ মানে লকডাউনের শেষ দিন পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছে।

বর্তমান পরিস্থিতিতে ভারতে প্রতিদিন ১৫০০ এর মতো করোনা সংক্রমণের নতুন মামলা সামনে আসছে। গোটা ভারতে এখন করোনায় আক্রান্তদের সংখ্যা ৩০ হাজারের আশেপাশে। বিশেষজ্ঞদের অনুযায়ী, ৩রা মে এর পরেও ভারতীয় রেল ট্রেন চালানোর কোন রিক্স নেবেনা।

অনেক রাজ্য পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরত পাঠানোর জন্য স্পেশ্যাল ট্রেন চালানোর দাবি করেছে। আরেকদিকে, রেলওয়েকে পরামর্শে বলা হয়েছে যে, লকডাউন ওঠার পর যদি ট্রেন চালানো হয়, তাহলে শুধু যেন এসি কামরাই যেন দেওয়া হয়, এরফলে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার বিপদ কমবে। এর সাথে সাথে রেড জোনে যেন কোনরকম ভাবেই ট্রেন চালানো না হয়। স্টেশনে যাত্রীদের যেন স্ক্রিনিং করানো হয়।

রেলওয়ে এটাও ভেবে দেখছে যে, সীমিত সংখ্যায় যাত্রীদের সফরের অনুমতি দেওয়া হবে। শোনা যাচ্ছে যে, এই সমস্ত ইস্যুতে বুধবার মিটিংয়ে চর্চা করা হবে। আর এভাবে ট্রেন চালানোর জন্য উপায় খোঁজা হবে। ট্রেন কতদিন বন্ধ থাকবে, সেটা নিয়ে শেষ সিদ্ধান্ত কেন্দ্র সরকার নেবে।

Back to top button
Close