Press "Enter" to skip to content

পোলিওর মতই করোনাকেও হারাবে ভারত, যৌথ অভিযানের জন্য পাশে দাঁড়াল WHO

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ ভারতে (INDIA) করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) মামলা লাগাতার বেড়ে চলেছে, এখনো পর্যন্ত এই মামলা বেড়ে ১২ হাজার পার করেছে। আর এই মহামারীকে কাবু করতে ভারতের পাশে এসে দাঁড়াল বিশ্ব স্বাস্থ সংগঠন (World Health Organization) (WHO)। বিশ্ব স্বাস্থ সংগঠনের প্রধান টেড্রোস (Tedros Adhanom) এই অভিযানকে স্বাগত জানিয়েছেন।

ভারত এর আগেও পোলিওর মতো রোগকে হারিয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ সংগঠনের সহজগে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সেই যোজনা গুলোর সুবিধা পাওয়া যাওয়া যাবে, যেগুলো পোলিওকে হারানোর সময় আপন করা হয়েছিল। বিশ্ব স্বাস্থ সংগঠন আর পরিবার কল্যাণ মন্ত্রালয় একসাথে মিলে এবার করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে লড়বে। বিশ্ব স্বাস্থ সংগঠনের রাষ্ট্রীয় পোলিও নজরদারি নেটওয়ার্ক কোভিড-১৯ সার্ভিল্যান্সকে আরও মজবুত করার কাজ করবে, আর এই নেটওয়াররের স্টাফ ইমিউনিটি বাড়ানোর উপর জোর দেবে। এই নেটওয়ার্কের সাহায্য যক্ষ্মারোগ এবং অন্যান্য রোগের সাথে লড়াই করতে সুবিধা হবে।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য স্বাস্থ মন্ত্রালয় আর WHO দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া ন্যাশানাল পোলিও সার্ভিল্যান্স নেটওয়ার্কের সাথে মিলে একটি অভিযান শুরু করেছে, ভারত যেমন ভাবে পোলিওকে হারিয়েছিল, সেরকম ভাবেই করোনাকে হারানোর জন্য উন্নত কার্যপ্রণালী আর উপায় গুলো নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গোটা বিশ্বে ২০ লক্ষের থেকেও বেশি মানুষ করোনার ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে আর ১ লক্ষ ৩৬ হাজার মানুষের এই ভাইরাসের কারণে মৃত্যু হয়েছে।

WHO এর প্রধান টেড্রোস ভারতের স্বাস্থ মন্ত্রী হর্ষবর্ধন আর ওনার নেতৃত্বে চলা অভিযানের প্রশংসা করেছেন। উনি ভারতকে বিশ্ব স্বাস্থ সংগঠনের সাথে হাত মেলানোর জন্য স্বাগত জানিয়েছেন। উনি বলেছেন, একসাথে মিলেমিশে কাজ করলে আমরা অবশ্যই এই মহামারীর বিরুদ্ধে জয় হাসিল করতে পারব। ২০১৪ সালে ভারত পোলিওকে হারিয়েছিল। স্বাস্থ মন্ত্রী হর্ষবর্ধন বলেন, সেই সময়ও ভারত সরকার আর বিশ্ব স্বাস্থ সংগঠন একসাথে কাজ করেছিল আর জয় হাসিল করেছিল।