নতুন খবরভারতবর্ষ

একশন মুডে যোগী সরকার! দুর্নীতি করায় ১০০০ জন অফিসারকে জোরপুর্বক অবসর করলো উত্তরপ্রদেশ সরকার।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে একটি বড় পদক্ষেপে, উত্তর প্রদেশের (Uttar Pradesh) মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) জোরপূর্বক এক হাজারের বেদি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে অবসর দিয়েছেন। দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের নীতির অধীনে যোগী সরকার এর আগে অনেক কর্মকর্তাকে জোর করে অবসর দিয়েছিল। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, দুর্নীতির অভিযোগে জড়িত এক হাজারেরও বেশি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে জোর করে অবসর দেওয়া হয়েছে। এর আগে ৭ জন দুর্নীতিবাজ পিপিএস (PPS) অফিসারকে জোর করে অবসর করানো হয়েছিল।

এ ছাড়া আরও দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের একটি তালিকা প্রস্তুত করা হচ্ছে বলে খবর রয়েছে। তালিকায় থাকা সকলকে জোর পূর্বক অবসর করানো হবে বলে জানা গেছে। জানিয়স দি, উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকার রাজ্যকে নতুন রূপ দেওয়ার উপর কাজ করছে। সমস্ত প্রান্তের জনগণ যাতে একসাথে উন্নয়নের মুখ দেখতে পারে তার উপর কাজ চলছে। ঠিকমতো হিসেব করলে দেখা যাবে ভারতে সবথেকে বেশি নির্মাণের কাজ উত্তরপ্রদেশে চলছে।

সম্প্রতি সরকার ৬ টি শহরে মেট্রো চালানোর ঘোষণাও করে দিয়েছে। এমন দুর্নীতি হলে বিকাশের গতি কমে যাবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।
তাই যোগী আদিত্যনাথের সরকার দুর্নীতির উপর জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে কাজ করছে। ডিএইচএফএল কেলেঙ্কারী ও হোম গার্ড কেলেঙ্কারী প্রকাশের পর সরকার একশন মুডে এসেছে। সরকার খুঁজে খুঁজে দুর্নীতিগ্রস্থ অফিসারদের তালিকা তৈরি করছে এবং তাদের অবসর দিচ্ছে। ডিএইচএফএল দুর্নীতির পর বিরোধীরা প্রশ্নঃ তুলেছিল যে মুখ্যমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স এখন কোথায়।

Yogi Adityanath

যে জেলাগুলিতে এই কেলেঙ্কারী হয়েছিল সেগুলির মধ্যে রয়েছে ফয়েজাবাদ, ইটাওয়াহ, গোরক্ষপুর, বেরিলি, বড়বাঙ্কি, আগ্রা, লখনউ, মথুরা, গাজীপুর, উন্নাও এবং সোনভদ্র। বর্তমানে সরকার বিষয়টি নিয়ে ভিজিলেন্স তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। অভিযুক্ত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে জালিয়াতি, লুট, আত্মসাৎ, ফৌজদারি ষড়যন্ত্র ও দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button