Press "Enter" to skip to content

সকল রাজ্যের সরকার ব্যাস্ত হজ হাউস নির্মাণে! যোগী আদিত্যনাথ নির্মাণ করছেন বিশাল কৈলাশ মানসসরোবর ভবন।

শেয়ার করুন -

মোদী, যোগী হিন্দুত্বের জন্য কি করেছে তা নিয়ে নান প্রশ্নঃ উঠতেই থাকে। অন্যদিকে দেশে NRC লাগু করার কথা বললে, CAA লাগু করার প্রসঙ্গ উঠলে বিজেপির উপর সাম্প্রদায়িক তকমাও লাগে। এখন আরো একবার যোগী আদিত্যনাথের একটা কাজ জোর দিয়ে চর্চায় আসতে চলেছে। আসলে যখন পুরো দেশের রাজ্য সরকারগুলি সংখ্যালঘুদের খুশি করার জন্য একের পর এক হজ হাউস নির্মাণে ব্যাস্ত তখন যোগী আদিত্যনাথ  (Yogi Aditya nath) হিন্দুদের জন্য কৈলাস মানস সরোবরে ভবন (Kailash Mansarovar Bhawan) নির্মাণের কাজ শুরু করেছেন।

জানিয়ে দি, দেশে যাতে সংখ্যালঘুদের ধর্ম পালনে কোনো কষ্ট না হয় তার জন্য বহু সংখ্যায় হজ হাউস নির্মাণ করা হয়েছে। তবে হিন্দু সম্প্রদায় যাতে স্বাচ্ছন্দ্য এর সাথে ধার্মিক কাজ করতে পারে তার উপর কোনো সরকার সাধারণ জোর দেয় না। সত্য এটাও যে, হিন্দু সম্প্রদায়ের এ বিষয়ে সরকারের কাছে কোনো দাবিও রাখেনি কখনো।

তবে হিন্দুত্ববাদীরা এ নিয়ে বহুবার দেশের সরকারের কাছে অভিযোগ তুলেছে। তবে ধর্ম নিরপেক্ষতার আড়ালে দেশের বড়ো মন্দির গুলি থেকে সরকার ট্যাক্স নিলেও পরিষেবা থেকে বঞ্চিত রয়েছে হিন্দু ধর্মালম্বীরা। হজ যাত্রীদের জন্য সরকার বিভিন্ন শহরে ফাইভ স্টার বন্দোবস্ত করে রেখেছে। কিন্তু কৈলাশ মানসরোভারের যাত্রীরা দিল্লির নাগরিক লাইনে গুজরাটি সমাজ সদন নামে একটি ধর্মশালায় কষ্টের সাথে থাকেন। এক একটি ছোটো ছোট রুমের মধ্যে ৫ জন করে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। তবে এবার হিন্দুদের জন্য যোগী আদিত্যনাথ বড়ো বন্দোবস্ত করতে চলেছেন।

যোগী সরকার উত্তরপ্রদেশে দিল্লির সংলগ্ন গাজিয়াবাদে এই দুর্দান্ত কৈলাশ মানসরোবর ভবন নির্মাণ করছেন। এখানে চার ধামের যাত্রীরাও থাকতে পারবেন। এই বিশাল ভবনটি যোগী আদিত্যনাথের ড্রিম প্রজেক্ট বলে দাবি করা হচ্ছে। হিন্দুত্ববাদীরা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ সনাতনের কতো বড়ো সেবা করছেন তা তিনি নিজেও জানেন না। প্রসঙ্গত, এই ভবন নির্মাণ হলে দেশজুড়ে যোগী আদিত্যনাথের খ্যাতি যে আরো ছড়িয়ে পড়বে তা নিয়ে সন্দেহ নেই।