Press "Enter" to skip to content

CAA বোঝাতে হটাৎ চৌধুরী কৈফুলওয়ারের বাড়ি! খুশিতে মেতে উঠলেন কৈফুলওয়ার, উপহার দিলেন গেরুয়া বস্ত্র।

শেয়ার করুন -

CAA নিয়ে মানুষজনের মধ্যে ব্যাপক হারে ভ্রান্তি ছড়িয়ে পড়েছে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। বহু মানুষ CAA নিয়ে না জেনেই পথে ঘাটে হাঙ্গামা করেছে তথা সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর করেছে। এখন কেন্দ্র সরকার ও বিজেপি CAA নিয়ে মানুষের মনে থাকা ভ্রান্তি দূর করতে নেমে পড়েছে। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ নিজে হেঁটে এলাকা পরিদর্শন করছেন এবং CAA নিয়ে জন জাগরণের কাজ শুরু করেছেন। রবিবার সকালে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (CAA) নিয়ে দ্বারে দ্বারে যোগাযোগ অভিযান করতে পৌঁছেছিলেন।

Yogi Adityanath

আজ মুখ্যমন্ত্রী গোরক্ষপুরের বাসিন্দা চৌধুরী কৈফুলওয়ারের কাছে পৌঁছছিলেন। যোগী আদিত্যনাথের অস্মিক আগমনের চৌধুরী কৈফুলওয়া আনন্দে মেতে উঠেন। গোরক্ষনাথ মন্দিরের মহন্ত দিগ্বিজয় নাথের সময় থেকে গোরক্ষনাথ মন্দিরের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এই পরিবার মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে দেখে আনন্দে উল্লসিত হয়ে পড়েন।

কারণ যোগী আদিত্যনাথ উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার সাথে সাথে গোরক্ষনাথ মঠের মহন্ত। আজ সিএম যোগী তাঁর ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে তাঁর সাথে দেখা করতে পৌঁছালে চৌধুরী তাকে ফুলের মালা দিয়ে স্বাগত জানান এবং গেরুয়া বস্ত্র উপহার দেন।

উল্লেখযোগ্য বিষয় এই যে, গোরক্ষপুর অনেক সময় ধরে যোগী আদিত্যনাথের নির্বাচনী ক্ষেত্র ছিল। এখান থেকে যোগী আদিত্যনাথ টানা ৫ বার সাংসদ ছিলেন। মহন্ত অবৈদ্যনাথ ছিলেন ইউপি সিএম যোগী আদিত্যনাথের গুরু। তিনি লোকসভার সাংসদও ছিলেন। অবৈদ্যনাথের পরামর্শদাতা ছিলেন মহন্ত দিগ্বিজয়নাথ। দিগ্বিজয়নাথ এবং সাদাত হুসেন খুব ভালো বন্ধু ছিলেন। এই সাদাত হুসেন ছিলেন কৈফুলওয়ার দাদা।