নতুন খবরভারতবর্ষ

পুলিশের সামনে বললেন মুসলিম মহিলা: আমাকে জোর করে CAA বিরোধী ধর্ণায় পাঠায় স্বামী

উত্তরপ্রদেশে () মুখ্যমন্ত্রী ের () শাসন রয়েছে এবং সরকার কড়া হাতে কট্টরপন্থীদের দমন করেছে। উত্তরপ্রদেশে কট্টরপন্থীরা CAA এর নামে যে উপদ্রব করার চেষ্টা করেছিল সেটাকেও কড়াহাতে দমন করেছে UP প্রশাসন। এখন উত্তরপ্ৰদেশ থেকে একটা নতুন ঘটনা সামনে এসেছে যা সকলকে অবাক করেছে। আসলে উত্তরপ্রদেশে পুলিশ বাড়ি বাড়ি গিয়ে কট্টরপন্থীদের পরামর্শ দিচ্ছে তারা যেন CAA নিয়ে সঠিক তথ্য না জেনে উপদ্রব না করে। পুলিশ যখন বাড়ি বাড়ি গিয়ে কট্টরপন্থীদের শিক্ষা দিচ্ছে তখন এক নতুন ঘটনা সামনে এসেছে।

পুলিশ এক মুসলিম বাড়ি গিয়ে CAA নিয়ে বোঝাতে শুরু করলে ওই বাড়ির মহিলা এসে তার স্বামীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ পুলিশের সামনে উগরে দেয়। মহিলা জানায় যে তার স্বামী তাকে জোরপূর্বক CAA বিরোধী আন্দোলন করতে পাঠায়।

পুলিশ মুসলিম বাড়িতে CAA নিয়ে বোঝাতে গেলেই মহিলা তার স্বামীর উপর চিৎকার করতে শুরু করে। কারণ মহিলাকে জোর করে CAA এর বিরুদ্ধে আন্দোলন করতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশকে সামনে পেয়ে মহিলাকে নিজের ক্ষোভ উগরে দেন মহিলা। মহিলা বলেন, আমি সত্য বলছি আমাকে জোর করে ধর্ণায় বসতে বাধ্য করা হয়।

ঘটনা উত্তরপ্রদেশের আলীগড়ের যেখানে পুলিশ উপদ্রব আটকানোর জন্য কার্যক্রম শুরু করেছে। ে রাস্তা আটক করে উপদ্রব করার প্রয়াস চলছে। যা আটকানোর জন্য পুলিশ কাজে নেমে পড়েছে। সেই কার্যক্রম চলাকালীন এক মহিলার তার স্বামীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন।মহিলা বলেন দু সপ্তাহ ধরে আমার স্বামী আমাকে জ্বালাতন করছে এবং ধর্ণায় বসতে বাধ্য করছে। জানিয়ে দি, জীবনগড় বাইপাসে আগেই উপদ্রবীরা আটক করে বসে পড়েছিল। প্রশাসন বাইপাস সাফ করতে সক্ষম হয়েছে। তবে এখনও নানা জায়গায় পথ আটকের প্লানিং চলছে বলে রিপোর্ট সামনে এসেছে। দিল্লীতেও এইভাবে রাস্তা আটক করেই দাঙ্গা সৃষ্টি করা হয়েছিল।

Back to top button
Close