Press "Enter" to skip to content

নাগরিকত্ব আইনের বিরোধ করে উৎপাত করছিল AMU এর ছাত্ররা! যোগীর পুলিশ লাঠিচার্জ করে দিল বেধড়ক ওষুধ।

শেয়ার করুন -

নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দেশের কট্টরপন্থীরা উপদ্রব শুরু করেছে। পশ্চিমবঙ্গের পর দিল্লী ও উত্তরপ্রদেশে অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টায় নেমেছিল কট্টরপন্থীরা। পশ্চিমবঙ্গে লুঙ্গি বাহিনী গত কয়েকদিন ধরে বেশ উৎপাত চালিয়েছে। প্রায় ১০০ কোটি টাকার রেলের সম্পত্তি নষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। এই উৎপাত উত্তরপ্রদেশ ও দিল্লীতে করার জন্য রাস্তায় নেমেছিল কট্টরপন্থীরা। তবে দিল্লী পুলিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অন্তর্গত ও উত্তরপ্রদেশ পুলিশ যোগী আদিত্যনাথের নেতৃত্বে কাজ করে এটা সম্ভবত ভুলে গেছিল উৎপাতকারীরা। দিল্লীতে জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়ার ছাত্ররাও CAB বিল নিয়ে বিরোধিতা করতে নেমে ছিল, পুলিশ ওই ছাত্রদেরও কড়া হাতে দমন করে।

 

দিল্লী পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যাপকহারে লাঠিচার্জ করে এবং ভিড়কে ছত্রভঙ্গ করে। দিল্লী পুলিশের লাঠিচার্জ এর জেরে বহু লাঠি ভেঙে যায়। একই ঘটনা উত্তরপ্রদেশের আলীগড় ইউনিভার্সিটিতে পুনরাবৃত্তি হয়। আলীগড় ইউনিভার্সিটির (AMU) ছাত্ররা রাস্তায় নেমে উৎপাত শুরু করলে UP Police লাঠিচার্জ, কাঁদুনে গ্যাস ব্যাবহার করে তাদের দমন করে। শুধু এই নয় পুরো রাজ্যের ভিন্ন ভিন্ন জেলায় ধারা ১৪৪ ধারা লাগু করে দেওয়া হয়েছে।

আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসটি খালি করা হচ্ছে। একটি নিউজ চ্যানেলের সাথে কথা বলার সময় ডিজিপি ওমপ্রকাশ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন। আসলে, রবিবার সন্ধ্যায় আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ে (এএমইউ) নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা ভর্তি ব্লকের বাইরে বিক্ষোভ করে এবং পুলিশ এর উপর পাথর ছুঁড়েছিল।

এসময় পুলিশ ও প্রশাসনিক আধিকারিকরা শিক্ষার্থীদের বোঝানোর চেষ্টা করলেও শিক্ষার্থীরা সঙ্গে সঙ্গে পাথর নিক্ষেপ করে। যার পরে পুলিশ একশন নেয়। পুলিশ টিয়ার গ্যাসের গুলি চালায়, চলে বেধড়ক লাঠিচার্জ। সোশ্যাল মিডিয়ায় এএমইউতে পাথর ছোঁড়ার গুলি ছোঁড়ার ভিডিও দেখে জেলা প্রশাসন 15 ডিসেম্বর রাত সাড়ে দশটা থেকে 16 ডিসেম্বর রাত 10 টা পর্যন্ত ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছে।