Press "Enter" to skip to content

উদ্ধব সরকারকে নিশানা ফড়নবিশের! বললেন, দাউদকে ছাড়ল আর কঙ্গনাকে ভাঙল

শেয়ার করুন -

মুম্বাইঃ মহারাষ্ট্র সরকার আর বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের (Kangana Ranaut) মধ্যে উত্তেজনা তুঙ্গে। মুম্বাই পুলিশ ওনার বিরুদ্ধে তদন্তও শুরু করে দিয়েছে। মুম্বাই পুলিশকে মহারাষ্ট্র সরকারের তরফ থেকে চিঠি জারি করে কঙ্গনার বিরুদ্ধে তদন্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এবার এই মামলায় বিজেপির নেতা তথা মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ শিবসেনাকে একহাতে নিয়েছেন। উনি রাজ্য সরকারকে বলেছেন, আপনি দাউদের বাড়ি ছেড়ে দিয়েছেন আর কঙ্গনার বাড়ি ভেঙেছেন। আরেকদিকে শরদ পাওয়ার বলেছেন, এই বিষয়ে মহারাষ্ট্র সরকারের কোন ভূমিকা নেই।

মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিশ বলন, ‘কঙ্গনা রানাওয়াত ইস্যু শিবসেনা অকারণে বাড়িয়েছে। কঙ্গনা কোন নেত্রী না। আপনি দাউদের বাড়ি ভাঙার জন্য যাবেন না, কিন্তু আপনি কঙ্গনার দফতর ভেঙে দেবেন।” এর আগে উনি ট্যুইট করে লিখেছিলেন, এটি রাজ্য সরকার দ্বারা পরিকল্পিত একটি সন্ত্রাসের নমুনা।

কঙ্গনার অফিস ভাঙচুর নিয়ে রাষ্ট্রবাদী কংগ্রেস পার্টির সভাপতি শরদ পাওয়ার বলেন, ‘এই সিদ্ধান্ত মুম্বাই মহানগরপালিকা (BMC) নিয়েছে। রাজ্য সরকারের এতে কোন ভূমিকা নেই। BMC নিজের মতো করে নিজের নিয়ম পালন করেছে।”

আরেকদিকে, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামদাস আটাবলে বলেন, ‘আমি মুম্বাইয়ে কঙ্গনার সম্পতিতে ভাঙচুর করা নিয়ে আজ মহারাষ্ট্রের রাজ্যপালের সাথে সাক্ষাৎ করি। আমি ওনার কাছে কঙ্গনাকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়েছি। যেভাবে BMC ওনার সম্পত্তি ভাঙচুর করেছে, সেটা ভুল। উনি ন্যায় পাওয়ার যোগ্য।”